kalerkantho


রেসিপি

দোসা চাটনির যুগলবন্দি

বিদেশি খাবারগুলোর স্বাদ নিতে রেস্টুরেন্টগুলো ছাড়া আর কোনো অপশন নেই, তেমন আর নয়। কেমন হয় যদি এই স্বাদ পান ঘরে বসেই? তামিলনাড়ুর বিখ্যাত খাবার দোসা ও চাটনির রেসিপি দিয়েছেন ফাহা হোসেন

১৪ মে, ২০১৮ ০০:০০



দোসা চাটনির যুগলবন্দি

রাইস ফ্লাওয়ার দোসা

উপকরণ

চালের গুঁড়া ১০০ গ্রাম, পোলাউয়ের চাল ১০০ গ্রাম, ছোলার ডাল ৫০ গ্রাম, মাষকলাই  ডাল  ৫০ গ্রাম, মুগ ডাল ৫০ গ্রাম, মেথি ৪ টেবিল চামচ, লবণ আধা চা চামচ, বাটার ১০০ গ্রাম, তেল ১ টেবিল চামচ, সামান্য দোসা মাসালা।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. প্রথমে পোলাউয়ের চাল, ছোলার ডাল, মাষকলাই ডাল, মুগ ডাল এবং মেথি একসঙ্গে করে পরিমাণমতো পানি দিয়ে সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন।

২. সকালে বারবার পানি বদলে ভেজানো চাল এবং ডালের মিশ্রণ খুব ভালো করে ধুয়ে নিন। এবার ব্লেন্ডারে অল্প অল্প করে মিশ্রণ নিয়ে কিছুটা পানি যোগ করে খুব ভালো করে পেস্ট করে নিন।

৩. সব মিশ্রণ পেস্ট হয়ে গেলে পুরো মিশ্রণটিতে লবণ ও চালের গুঁড়া মিশিয়ে ২ ঘণ্টা ঢেকে রাখুন। মিশ্রণটি খুব বেশি ঘন বা পাতলা হবে না।

৪. একটি লোহার তাওয়া গরম করে নিন। তেল ও পানির মিশ্রণে ভেজানো এক টুকরা কাপড় দিয়ে গরম তাওয়াটি মুছে হালকা ঠাণ্ডা করে নিন। এবার এতে অল্প মিশ্রণ ঢেলে দিয়ে গোলাকার তলাযুক্ত কোনো চামচ দিয়ে খুব তাড়াতাড়ি পুরো তাওয়ায় মিশ্রণটি ছড়িয়ে বড় রুটির আকার দিন। কিছুক্ষণ পর রুটিতে অল্প বাটার মেখে একটু অপেক্ষা করুন। দোসা লালচে রং হলেই তার মাঝে কিছুটা দোসা মাসালা দিয়ে একটি পাতলা খুন্তি রুটির নিচে দিয়ে ভাঁজ করে গরম গরম পরিবেশন করুন।

 

 

দোসা ধনিয়া চাটনি

উপকরণ

ফ্রেশ ধনেপাতা আধা কাপ, ছোলার ডাল ১ চা চামচ, মাষকলাই ডাল ১ চা চামচ, মুগ ডাল ১ চা চামচ, চিনি আধা চা চামচ, শুকনা মরিচ ৩টি, লাল সরিষা ১/৪ চা চামচ, নারিকেল তেল ২ টেবিল চামচ, লবণ ১/৩ চা চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. প্রথমে ছোলার ডাল, মাষকলাই ডাল, মুগ ডাল এগুলো হালকা গরম পানিতে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। এরপর ডালগুলো ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।

২. এবার নারিকেল তেল গরম করে তাতে পানি ঝরিয়ে রাখা ডাল, সরিষা দানা, শুকনা মরিচগুলো তেলে ভেজে একটু বাদামি হলেই তুলে নিন।

৩. এবার ব্লেন্ডারে ভাজা ডাল, সরিষার দানা, শুকনা মরিচ, চিনি, লবণ ও ধুয়ে রাখা ধনেপাতাগুলো খুব ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। খুব মিহি পেস্ট করে নিলেই হয়ে গেল দোসা ধনিয়া চাটনি, পরিবেশন করুন গরম গরম দোসার সঙ্গে।

 

 

মহীশূরের মাসালা দোসা

উপকরণ-১

সিদ্ধ আলু আধা কাপ, কাঁচা মটর ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া ১/৩ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১/৩ চা চামচ, লবণ ১/৩ চা চামচ, কাঁচা মরিচ কুচি ১/৩ চা চামচ, তেল ১ টেবিল চামচ।

 

যেভাবে তৈরি করবেন

১.         প্রথমে প্যানে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ দিয়ে হালকা ভেজে নিন।

২.         এবার এতে হলুদ গুঁড়া, মরিচ গুঁড়া ও লবণ দিয়ে একটু কষিয়ে নিন। এতে একটা একটা করে সিদ্ধ আলু হাতে চটকে দিয়ে দিন।

৩.        এরপর কাঁচা মটর দিয়ে খুব অল্প জ্বালে ঢেকে ৫ মিনিট রান্না করলেই হয়ে গেল মাসালা দোসা।

উপকরণ-২

পোলাউয়ের চাল ১০০ গ্রাম, ছোলার ডাল ৫০ গ্রাম, মাষকলাই ডাল ৫০ গ্রাম, মুগ ডাল ৫০ গ্রাম, মেথি ৪ টেবিল চামচ, লবণ আধা চা চামচ, বাটার ১০০ গ্রাম, তেল ১ টেবিল চামচ।

 

যেভাবে তৈরি করবেন

১.         প্রথমে পোলাউয়ের চাল, ছোলার ডাল, মাষকলাই ডাল, মুগ ডাল এবং মেথি একসঙ্গে করে পরিমাণমতো পানি দিয়ে সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন।

২.         সকালে বারবার পানি বদলে ভেজানো চাল এবং ডালের মিশ্রণ খুব ভালো করে ধুয়ে নিন। এবার ব্লেন্ডারে অল্প অল্প করে মিশ্রণ নিয়ে কিছুটা পানি যোগ করে খুব ভালো করে পেস্ট করে নিন।

৩.        সব মিশ্রণ পেস্ট হয়ে গেলে পুরো মিশ্রণটিতে লবণ ও চালের গুঁড়া মিশিয়ে ২ ঘণ্টা ঢেকে রাখুন। মিশ্রণটি খুব বেশি ঘন বা পাতলা হবে না।

৪.         একটি লোহার তাওয়া গরম করে নিন। তেল ও পানির মিশ্রণে ভেজানো এক টুকরো কাপড় দিয়ে গরম তাওয়াটি মুছে হালকা ঠাণ্ডা করে নিন। এবার এতে অল্প মিশ্রণ ঢেলে দিয়ে গোলাকার তলাযুক্ত কোনো চামচ দিয়ে খুব তাড়াতাড়ি পুরো তাওয়ায় মিশ্রণটি ছড়িয়ে বড় রুটির আকার দিন। কিছুক্ষণ পর রুটিতে অল্প বাটার মেখে একটু অপেক্ষা করুন। দোসা লালচে রং হলেই তার মাঝে কিছুটা দোসা মাসালা দিয়ে একটি পাতলা খুন্তি রুটির নিচে দিয়ে ভাঁজ করে গরম গরম পরিবেশন করুন।

 

 

কোকোনাট চাটনি

উপকরণ

কোরানো নারিকেল আধা কাপ, ছোলার ডাল ১ চা চামচ, মাষকলাই ডাল ১ চা চামচ, মুগ ডাল ১ চা চামচ, চিনি আধা চা চামচ, শুকনা মরিচ ৩ টা, লাল সরিষা ১/৪ চা চামচ, কারি পাতা ৩/৪ টা, নারিকেল তেল ২ টেবিল চামচ, লবণ ১/৩ চা চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১.         প্রথমে ছোলার ডাল, মাষকলাই ডাল, মুগ ডাল এগুলো হালকা গরম পানিতে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। এরপর ডালগুলো ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।

২.         এবার নারিকেল তেল গরম করে তাতে পানি ঝরিয়ে রাখা ডালগুলো তেলে ভেজে একটু বাদামি হলেই তুলে নিন।

৩.        এবার ব্লেন্ডারে ভাজা ডালগুলোয় চিনি, লবণ ও কোরানো নারিকেলগুলো খুব ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। খুব মিহি পেস্ট হয়ে এলে তা বাটিতে তুলে নিয়ে বাকি নারিকেল তেল গরম করে তাতে শুকনা মরিচ, কারি পাতা এবং লাল সরিষা ভেজে নিয়ে তা দিয়ে চাটনিটা ফোড়ন দিলেই হয়ে গেল কোকোনাট চাটনি।

 

 

প্লেইন দোসা বাটার টোস্ট

উপকরণ

পোলাউয়ের চাল ১০০ গ্রাম, ছোলার ডাল ৫০ গ্রাম, মাষকলাই ডাল ৫০ গ্রাম, মুগ ডাল ৫০ গ্রাম, মেথি ৪ টেবিল চামচ, লবণ আধা চা চামচ, বাটার ১০০ গ্রাম, তেল ১ টেবিল চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১.         প্রথমে পোলাউয়ের চাল, ছোলার ডাল, মাষকলাই ডাল, মুগ ডাল ও মেথি একসঙ্গে করে পরিমাণমতো পানি দিয়ে সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন।

২.         সকালে বারবার পানি বদলে ভেজানো চাল এবং ডালের মিশ্রণ খুব ভালো করে ধুয়ে নিন। এবার ব্লেন্ডারে অল্প অল্প করে মিশ্রণ নিয়ে কিছুটা পানি যোগ করে খুব ভালো করে পেস্ট করে নিন।

৩.        সব মিশ্রণ পেস্ট হয়ে গেলে পুরো মিশ্রণটিতে লবণ ও চালের গুঁড়া মিশিয়ে ২ ঘণ্টা ঢেকে রাখুন। মিশ্রণটি খুব বেশি ঘন বা পাতলা হবে না।

৪.         একটি লোহার তাওয়া গরম করে নিন। তেল ও পানির মিশ্রণে ভেজানো এক টুকরো কাপড় দিয়ে গরম তাওয়াটি মুছে হালকা ঠাণ্ডা করে নিন। এবার এতে অল্প মিশ্রণ ঢেলে দিয়ে গোলাকার তলাযুক্ত কোনো চামচ দিয়ে খুব তাড়াতাড়ি পুরো তাওয়ায় মিশ্রণটি ছড়িয়ে বড় রুটির আকার দিন। কিছুক্ষণ পর রুটিতে অল্প বাটার মেখে একটু অপেক্ষা করুন। দোসা লালচে রং হলেই তার মাঝে কিছুটা দোসা মাসালা দিয়ে একটি পাতলা খুন্তি রুটির নিচে দিয়ে ভাঁজ করে গরম পরিবেশন করুন।

 

 

দোসা টমেটো চাটনি

উপকরণ

টমেটো স্লাইস আধা কাপ, ছোলার ডাল ১ চা চামচ, মাষকলাই ডাল ১ চা চামচ, মুগ ডাল ১ চা চামচ, চিনি আধা চা চামচ, শুকনা মরিচ ৩টা, লাল সরিষা ১/৪ চা চামচ, নারিকেল তেল ২ টেবিল চামচ, লবণ ১/৩ চা চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১.         প্রথমে ছোলার ডাল, মাষকলাই ডাল, মুগ ডাল এগুলো হালকা গরম পানিতে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন, এরপর ডালগুলো ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।

২.         এবার নারিকেল তেল গরম করে তাতে পানি ঝরিয়ে রাখা ডাল, সরিষা দানা, শুকনা মরিচ তেলে ভেজে একটু বাদামি হলেই তুলে নিন। এবার ব্লেন্ডারে ভাজা ডাল, সরিষার দানা, শুকনা মরিচ, চিনি, লবণ ও স্লাইস করা টমেটো ভালো করে ব্লেন্ড করে খুব মিহি পেস্ট করে নিলেই হয়ে গেল দোসা টমেটো চাটনি।


মন্তব্য