kalerkantho


রূপচর্চা

ত্বকে রোজকার রুটিন

সব বয়সী মানুষকে ত্বকের যত্নে একটি বেসিক স্কিন কেয়ার রুটিন মেনে চলা উচিত। ত্বক ভালো রাখতে ক্লিনজিং, টোনিং ও ময়েশ্চারাইজিং নিয়ম মেনে অনুসরণ করতে হবে। রেড বিউটি স্যালনের রূপ বিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন জানাচ্ছেন সব ধরনের ত্বকের জন্য ডেইলি রুটিন

৯ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



ত্বকে রোজকার রুটিন

ত্বক পরিষ্কার

একটু একটু করে সারা দিনের ধূলিকণা, লোমকূপ নিঃসৃত তেল, সানস্ক্রিন, মেকআপ ইত্যাদি জমে মুখের ত্বকে। এসব ধুলো-ময়লা কিছু তেলে দ্রবীভূত হয় আর কিছু পানিতে। তাই শুধু ফেসওয়াশ দিয়ে সব ময়লা দূর করা যায় না। সঠিকভাবে ত্বক পরিষ্কারে দরকার হবে একটি অয়েল বেইজড ক্লিঞ্জার। এটি একেবারে ত্বকের গভীর থেকে মেকআপ বা ক্রিমের অবশিষ্টাংশ বের করে আনবে। এরপর পছন্দের যেকোনো ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে।

 

ময়েশ্চারাইজার

একটি সাধারণ ভুল ধারণা হলো তৈলাক্ত ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। তৈলাক্ত ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার না করলে তেল গ্রন্থির তেল নিঃসরণ আরো বেড়ে যায়। ফলে ত্বকে ব্রণ রিংকেলসহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। শুষ্ক, তৈলাক্ত ও মিশ্র ত্বকের জন্য আলাদা ময়েশ্চারাইজার পাওয়া যায় বাজারে। ত্বকের সুস্থতায় দিনে দুবার সকালে ও রাতে ঘুমানোর আগে ময়েশ্চারাইজার লাগানো জরুরি। দিনের বেলা বাইরে বের হতে হলে প্রথমে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে তার ওপর সানস্ক্রিন লাগাতে হবে। সানস্ক্রিনের কার্যকারিতা শেষ হওয়ার আগেই ওয়েট টিস্যু দিয়ে মুছে আবার সানস্ত্রিন লাগাতে হবে।

 

সাধারণ পরিচর্যা

হ          আইস বক্সে ডাবের পানি দিয়ে বরফ বানিয়ে রাখুন। বাইরে থেকে ফিরে প্রথমে ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। ডাবের আইস পাতলা কাপড়ে পেঁচিয়ে মুখে ও হাতের খোলা অংশে ঘষুন। রোদে পোড়া দাগ হবে না।

হ          রোদে বাইরে গেলে খেয়াল রাখুন সূর্যের তাপ যেন সরাসরি ত্বকে না লাগে। সানস্ক্রিন দিলেও ছাতা ব্যবহার করুন। স্কার্ফ বা ক্যাপ রাখতে পারেন সঙ্গে। রোদে মাথাব্যথা সমস্যা থাকলে অবশ্যই ইউভি প্রটেক্টিভ সানগ্লাস ব্যবহার করুন।

হ          ব্যাগে রাখুন ওয়েট টিস্যু। গোলাপজল ও সমপরিমাণ অ্যালোভেরা জল মিশিয়ে ওয়াটার স্প্রে বোতলে ভরে সঙ্গে রাখুন। দীর্ঘ সময় বাইরে থাকতে হলে ফ্রেশ দেখাতে প্রথমে ওয়েট টিস্যু দিয়ে মুখ মুছে নিন। তারপর গোলাপজলের মিশ্রণ স্প্রে করুন। শুকিয়ে গেলে সানস্ক্রিন আর পাউডার বুলিয়ে নিলেই সতেজ দেখাবে। মাঝারি আকারের ব্যাগ রাখুন সঙ্গে। পানির বোতল, ছাতাসহ প্রয়োজনীয় সব কিছু রাখা যায়।

হ          পেট ঠিকমতো পরিষ্কার না হওয়া কিংবা পানি কম খাওয়ার জন্য ত্বকের নানা ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। সারা দিন গুনে গুনে ৮-১০ গ্লাস পানি পান করুন। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এক গ্লাস পানিতে এক টেবিল চামচ ইসবগুলের ভুসি মিশিয়ে সঙ্গে সঙ্গে খেয়ে নিলে পেট পরিষ্কার থাকবে।

হ  প্রতিদিন রাতে শোবার আগে এক গ্লাস কুসুম গরম দুধে এক টিমটি হলুদ গুঁড়া মিশিয়ে খেলে ভেতর থেকে ত্বকের জেল্লা বাড়বে।

 

 



মন্তব্য