kalerkantho


আয়োজন : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

ভবিষ্যৎ চিত্রকরদের প্রদর্শনী

আলী ইউনুস হৃদয়

১১ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



ভবিষ্যৎ চিত্রকরদের প্রদর্শনী

শরিফুল ইসলামের আঁকা এই ছবিটির নাম ‘অবহেলা’

এই আয়োজনের নাম ‘বার্ষিক চারুকলা প্রদর্শনী’। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ আয়োজন করেছে। অনুষদ ভবনের ফটো গ্যালারিতে দর্শকরা চিত্রকলা, প্রাচ্যকলা ও ছাপচিত্র বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীদের আঁকা ১২০টি চিত্রকর্ম ঘুরে দেখেছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞানের ছাত্র ওয়াসিফ রিয়াদ ছবি দেখে মন্তব্য লিখেছেন, ‘ছবিগুলো অসাধারণ, তবে স্থায়ীভাবে প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন। তাহলে নবীনরা যেমন এগুলো থেকে শিখতে পারবে, তেমনি সারা বছর সবাই চিত্রকর্মগুলো দেখার সুযোগ পাবে।’ চার দিনের এই প্রদর্শনী উদ্বোধনের সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহান বলেন, ‘চারুকলায় যারা পড়ে, তারা তাদের মনন, সৃজন ও উৎকর্ষ চিত্রকর্মে প্রকাশ করে। এভাবেই নতুনের সৃজন হয়, বড় শিল্পী তৈরি হয়।’ এবার ‘নিরীক্ষাধর্মী’তে স্নাতকোত্তর শ্রেণির তিনজন, ‘শ্রেষ্ঠ’তে স্নাতকের তিনজন ও ‘স্মৃতি’ বিভাগে ১৩ জনকে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। নিরীক্ষায় ‘নেচার ইন লাইট অ্যান্ড সেড-১’-এর জন্য চিত্রকলার খালেদ হাসান, ‘সজীবতার ছন্দ’তে প্রাচ্যকলার তন্বী সরকার এবং ‘লাইভ হুড-৩’ এঁকে ছাপচিত্রের ফায়িজ মোহাম্মদ পুরস্কার পেয়েছেন। ‘শ্রেষ্ঠ’ বিভাগে ‘অবহেলা’র জন্য চিত্রকলার শরিফুল ইসলাম, ‘শ্রমিক-১’-এর জন্য ছাপচিত্রের আরিফুল ইসলাম, ‘বৈচিত্র্যের অন্বেষণ’-এর জন্য ছাপচিত্রের রায়হান আহমেদ পুরস্কার পেয়েছেন। ‘স্মৃতি’ বিভাগে ‘সিটি স্কেপ অব ড্রিম-৫’-এর জন্য মাছুমা খাতুন মৌ ‘শিল্পী দীপা হক স্মৃতি পুরস্কার’; ‘ড্রইং’-এর জন্য মুন্নি প্রামাণিক ‘শিল্পী আসাদুল ইসলাম স্মৃতি পুরস্কার’; ‘চারু চত্বর’-এর জন্য খায়রুল আলম ‘শিল্পী কাজী আব্দুল বাসেত স্মৃতি পুরস্কার’; ‘নিসর্গ-১’-এর জন্য ফারহান ফয়সাল ‘শিল্পী আমিনুল ইসলাম স্মৃতি পুরস্কার’; ‘ধন্য ধন্য বলি তারে’র জন্য ফখর উদ্দিন ‘শিল্পী কামরুল হাসান স্মৃতি পুরস্কার’; ‘অনুশীলন’-এর জন্য আল আমিন ইসলাম ‘শিল্পী শওকাতুজ্জামান স্মৃতি পুরস্কার’; ‘জড়জীবন’-এর জন্য মুনমুন নাহার ‘শিল্পী এস এম সুলতান স্মৃতি পুরস্কার’; ‘সৃজন অতঃপর পুনঃসৃজন’-এর জন্য সঞ্জয় কুমার প্রামাণিক ‘শিল্পী রশীদ চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার’; ফিগার কম্পোজিশনে বালিজুর রহমান সাগর ‘শিল্পী মোহাম্মদ কিবরিয়া স্মৃতি পুরস্কার’; ‘ক্লোজ আপ স্টাডি’তে মাইশা মালিহা ‘শিল্পী আব্দুর রাজ্জাক স্মৃতি পুরস্কার’; ‘স্লাম লাইফ-৩’-এর জন্য রাগিব শাকিল আর রাফি ‘শিল্পী হবিবুর রহমান স্মৃতি পুরস্কার’ এবং ‘ল্যান্ডস্কেপ স্টাডি’র জন্য আলিউল ইসলাম ‘শিল্পী শফিউদ্দিন আহমেদ স্মৃতি পুরস্কার’ পেয়েছেন। ‘শ্রেষ্ঠ’ মাধ্যমে পুরস্কার পাওয়া শরিফুল ইসলাম বললেন, “আমার ‘অবহেলা’ শিল্পকর্মে এ দেশের চারুকলার প্রতি সমাজ, রাষ্ট্র, বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভাগের অবহেলাই তুলে ধরেছি।” তিনি জানালেন, দুই মাস ধরে এই ছবি আঁকতে তাঁর আড়াই হাজার টাকা খরচ হয়েছে। বিভাগের কোনো অনুদান পাওয়া যায়নি।

প্রদর্শনীর আহ্বায়ক অনুষদের অধ্যাপক অধ্যাপক ড. সিদ্ধার্থ শঙ্কর তালুকদার জানালেন, ‘অনেক প্রতিবন্ধকতার মুখে আমরা বার্ষিক প্রদর্শনী করেছি। অনেক দিনের সমস্যা স্থায়ী গ্যালারি নেই বলে শ্রেণিকক্ষে ক্লাস বন্ধ রেখে প্রদর্শনী করতে হয়েছে, বারান্দায়ও ছবি প্রদর্শিত হয়েছে। প্রশাসনের কাছে গ্যালারির জন্য আবেদন করা হয়েছে।’



মন্তব্য