kalerkantho


মেহেদি

নকশায় ট্যাটুর হাওয়া

ঈদের মেহেদি নকশা নিয়ে বিস্তারিত জানালেন স্টাইল ওমেন্স পার্লারের রূপবিশেষজ্ঞ ও মেহেদি আর্টিস্ট আনিকা আসমা

১১ জুন, ২০১৮ ০০:০০



নকশায় ট্যাটুর হাওয়া

চাঁদরাতে হাতে মেহেদির নকশা ঈদে বাড়তি আমেজ এনে দেয়। এখন মেহেদি লাগানোর প্রক্রিয়া যেমন সহজ, তেমনি নিত্যনতুন নকশা যোগ হচ্ছে। আসছে ঈদে মেহেদিতে ভরাট সনাতন নকশার পাশাপাশি থাকছে ট্যাটুসদৃশ নকশা, যেটা হাতের তালু, চোটে থেকে শুরু করে বাহু, এমনকি কাঁধেও ঠাঁই পেয়েছে।

 

সনাতনের মধ্যে জনপ্রিয় হাত ভরাটের পাশাপাশি হাতের একপাশে লম্বালম্বি নকশা। ফুল-পাতা ডিজাইনের সঙ্গে ময়ূর, কলকি, চরকা, পানপাতা। ছোট ছোট মোটিফে নকশা করে হাত ভরে ঘন করেও মেহেদি দিতে পারেন। সালোয়ার-কামিজ পরলে মেহেদির ডিজাইনটা তখন হাতের তালুতে বেশি নকশা দিয়ে ওপরটা হালকা রাখতে পারেন। কুর্তা বা লং কামিজের সঙ্গে কনুই পর্যন্ত মেহেদি না পরাই ভালো।

আর ট্যাটুসদৃশ মেহেদির নকশা ছোট ছোট মোটিফ, ফুল, পাতা, কারো নামের স্বাক্ষর, কোনো সংকেত ইত্যাদি হাতের চোটে, হাতের ওপরে, বাজুতে করতে পারেন। হাতা কাটা কামিজ কিংবা ব্লাউজের সঙ্গে বাহুতে বাজুবন্ধের মতো করেও নকশা এঁকে নিতে পারেন। তবে ওয়েস্টার্ন পোশাকের সঙ্গেই এই ট্যাটু নকশার মেহেদি বেশি মানানসই। 

পায়েও অনেকে শখ করে মেহেদি লাগান। সে ক্ষেত্রে পায়ের দুই পাশে চিকন কোনো ফুল বা পাতার ডিজাইন এবং পায়ের পাতায় ছোট ছোট মোটিফ ভালো মানাবে। 

খেয়াল রাখবেন, হাত ভর্তি করে মেহেদি দিলে নকশা যেন সূক্ষ্ম হয়। তালুর মাঝখানে স্পষ্ট গাঢ় নকশাও বেশ ছিমছাম দেখাবে। সূক্ষ্ম ডিজাইনের কিছুটা অংশ ভরাট করে নকশায় ফিউশনও করতে পারেন। নখের চারপাশে ভরাট করে মেহেদি দিলে সে ক্ষেত্রে নখে হালকা রঙের নেইলপলিশ লাগালে ভালো দেখাবে। কালো আর লাল মেহেদি মিলিয়েও লাগাতে পারেন।

তবে কালো মেহেদির রং ১৫ দিন পর্যন্ত থাকে। তাই কালো মেহেদি লাগানোই ভালো।

কী রকম নকশায় মেহেদি লাগাতে চান যাঁরা বুঝতে পারছেন না, তাঁরা চাইলে গুগলে অনেক অ্যাপস আছে, সেখান থেকে ডাউনলোড দিয়েও নিতে পারেন। যাঁরা বাড়িতে বসে মেহেদি পরতে চান, তাঁরা ফেসবুকভিত্তিক মেহেদি আর্টিস্টের পেইজ আছে, সেখানেও যোগাযোগ করতে পারেন।  প্রতিষ্ঠিত বিউটি পার্লারে কিংবা মেহেদি আর্টিস্টের কাছে মেহেদি দিতে খরচ পড়বে নানা রকম। ঘন নকশায় দুই হাত ভরে মেহেদি লাগাতে খরচ দুই হাজার থেকে চার হাজার টাকা। এ ছাড়া হালকা নকশায় চেইনের মতো করে এক হাতে মেহেদি দিতে ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা লাগতে পারে। হাতের মাঝখানে দুই পিঠে ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা, কনুই থেকে হাতের আঙুল (দুই পাশ) এক হাজার থেকে এক হাজার ৬০০ টাকা লাগবে। শিশুদের মেহেদির জন্য খরচ পড়বে ৫০০ থেকে এক হাজার টাকা। আর ট্যাটুসদৃশ নকশা করতে পারবেন ২৫০  থেকে ৫০০ টাকার মধ্যে।


মন্তব্য