kalerkantho


দাওয়াই

খেয়েও সুস্থ থাকুন

কোরবানির মাংস অবশ্যই খাবেন, সেই সঙ্গে সালাদ ও শাকসবজির মেন্যু রাখুন। তার পরও সমস্যা হলে জেনে নিন ঘরোয়া সমাধান। জানালেন পুষ্টিবিদ ফারহানা নিশি

২৭ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



খেয়েও সুস্থ থাকুন

ঈদের মেন্যু বলে কথা। কাবাব, ভুনা মাসালা, কোরমা, রেজালা—কত যে পদ মাংসের! একটু বেশি খেয়ে ফলাফল গ্যাস, বদহজম, পেট ফাঁপা, কোষ্ঠকাঠিন্যসহ নানা সমস্যা।

সারা বছর না হলেও এই ঈদে অনেকেরই এসব সমস্যা হতে পারে। প্রয়োজনের বেশি শর্করা ও প্রোটিন গ্রহণ করা আর সেই অনুপাতে শাকসবজি অর্থাৎ আঁশযুক্ত সবজি না খাওয়াই এর প্রধান কারণ। সমস্যা এড়াতে ঈদের আগেই জেনে নিন কী করবেন।

পেট ফাঁপা ও গ্যাস্ট্রিক

♦        পেটের গ্যাস বের হওয়ার সহজ সমাধান হলো আদা খাওয়া। প্রতি বেলা মাংস খাওয়ার পর এক টুকরা আদা চিবিয়ে খান। পেটে গ্যাস জমবে না। কাঁচা আদা চিবিয়ে খেতে না পারলে আদার চা পান করুন। দুই কাপ পানিতে এক টুকরা আদা কুচি দিয়ে জ্বাল দিয়ে এক কাপ পরিমাণ করে এতে সামান্য মধু মিশিয়ে আদা চা তৈরি করে পান করুন। হজমের গণ্ডগোল হবে না।

বড় এক টুকরা আদা ছেঁচে পানিতে ফুটিয়ে নিন। বেশ কিছুক্ষণ জ্বাল হলে নামিয়ে নিন। কুসুম গরম থাকতে পান করুন। দিনে দুই বেলা পান করলে উপকার পাবেন।

♦        গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা হলেই ওষুধ খাবেন না। হালকা গরম পানিতে আধা কাপ লেবুর রস মিশিয়ে খান। কিছুক্ষণের মধ্যেই ব্যথা কমে যাবে।

♦        খাওয়ার ফাঁকে ফাঁকে পানি পানের অভ্যাস বাদ দিন। এতে খাবার ভালো হজম হয় না আর গ্যাসে পেট ফেঁপে যায়, অস্থির লাগে। খাওয়ার আধা ঘণ্টা পর পানি পান করুন। খুব প্রয়োজন হলে খাওয়ার মধ্যে এক ঢোক পানি পান করতে পারেন।

♦        পেট ফাঁপা সমস্যায় রসুন খুব উপকারী। দু-এক কোয়া রসুন চিবিয়ে খেতে পারেন। পেট ফাঁপার সমস্যা হবে না।

 

বদহজম

♦        বদহজমের জন্য এক কাপ পানিতে এক টেবিল চামচ সাদা ভিনেগার ও এক চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করুন। উপকার পাবেন।

♦        এক টেবিল চামচ আদার রস, এক টেবিল চামচ লেবুর রস ও একচিমটি লবণ ভালো করে মিশিয়ে খান। পানি মেশাবেন না। সঙ্গে সঙ্গে উপকার পাবেন। আদা কুচি লবণ দিয়ে চিবিয়ে খেলেও উপশম হবে সমস্যার।

♦        বদহজমে আরাম পেতে এক কাপ পানিতে এক টেবিল চামচ দারচিনি গুঁড়া দিয়ে জ্বাল দিন। অর্ধেক হলে নামিয়ে রাখুন। মধু মিশিয়ে গরম গরম দুইবার পান করুন।

♦        বেকিং সোডা বদহজমের সমস্যা দূর করতে খুবই কার্যকর। আধা গ্লাস পানিতে আধা চা চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে পান করুন। বদহজমের সমস্যা দূর হবে।

♦        কুসুম গরম পানিতে সামান্য লবণ মিশিয়ে পান করলে বেশ উপকার পাবেন।

 

কোষ্ঠকাঠিন্য

♦        কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে আঁশজাতীয় খাবারের জুড়ি নেই। মাংসের পাশাপাশি কাঁচা সালাদ ও সবজি খাবেন। প্রতি বেলা এক বাটি সালাদ বা সবজি খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য থাকবে না।

♦        বেশি পরিমাণে আমিষ খেলে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা হতে পারে। রাতে ঘুমানোর আগে এবং সকালে ঘুম থেকে উঠে ইসবগুল খাবেন। মনে রাখবেন, ভিজিয়ে রাখলে ইসবগুলের উপকারিতা নষ্ট হয়ে যায়।

♦        বড় একটি সাদা এলাচ এক কাপ গরম দুধে ভিজিয়ে রাখুন সারা রাত। সকালে এলাচটি থেঁতো করে দুধসহ খেয়ে  নিন।

♦        কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায় অ্যালোভেরা জেল বেশ কার্যকর। কাঁটাচামচ দিয়ে একটা অ্যালোভেরা পাতার শাঁস বের করুন। এক গ্লাস পানির সঙ্গে মিশিয়ে সকালে খালি পেটে পান করুন। উপকার পাবেন।


মন্তব্য