kalerkantho


ছড়া

কিছুক্ষণ এইখানে থাকি

সাজ্জাদ হুসাইন

১১ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



কিছুক্ষণ এইখানে থাকি

অঙ্কন : মানব

ইটের এই ঘরটায় জানলাটা ছোট—

ঝুমবৃষ্টির দল বলে এবার জেগে ওঠো।

জেগে দেখি বৃষ্টির ছেলে আর মেয়ে

ওপাশের ছাদটায় ওঠে গান গেয়ে।

নদী-বন ছেড়েছুড়ে কোনো এক গাঁঁয়ে

চুপ মেরে বসে থাকে গুটিগুটি পায়ে।

বলে—‘না না যাব না কোত্থাও আজি’

ওর কথা শুনে আমি হয়ে যাই রাজি।

মেতে উঠি আড্ডায় মিলে দুইজনে

পিঁড়েয় বসে গান গাই হাসিখুশি মনে।

দাওয়ায়ই মা দেয় মাদুরটা পেতে

বাটি ভরে গুড়-মুড়ি-নাড়ু দেয় খেতে।

সামনের উঠোন ডোবে এক হাঁটু জলে
নেমে যাই সব্বাই আষাঢ়ের ঢলে।

শুরু হয় লাফঝাঁপ, কাদা ছোড়াছুড়ি

বিলে নেমে জলডুব খেয়ে গুড়-মুড়ি।

সবশেষে দিদা এসে ডেকে নেয় কাছে

একে একে বলে যত রূপকথা আছে।

রূপকথা শুনে শুনে চোখ বুজে আসে

ভেজা ভেজা ঘ্রাণ পাই হিমেল বাতাসে।

ঘুমে ঘুমে ডুবে যাই ঘুম আসে নাকো

মাগো তুমি বারবার কেন অত ডাকো?

বিষ্টিটা গেলে নয় যাব ইশকুলে

ওই দেখো টবটাও ভরে আছে ফুলে।

ওর সাথে কিছু কথা আরো আছে বাকি

লক্ষ্মী মা, কিছুক্ষণ এইখানে থাকি?


মন্তব্য