kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

চট্টগ্রামে জামায়াতের ঝটিকা মিছিল থেকে যানবাহন ভাঙচুর

প্রতিবাদে ছাত্রলীগের মিছিল

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১২ অক্টোবর, ২০১৭ ০৫:৪৯



চট্টগ্রামে জামায়াতের ঝটিকা মিছিল থেকে যানবাহন ভাঙচুর

জামায়াতে ইসলামীর ডাকা আজকের হরতালের সমর্থনে চট্টগ্রাম শহরে ঝটিকা মিছিল হয়েছে। আর কিছু বুঝে ওঠার আগেই মিছিল থেকে জামায়াত ও শিবিরের কর্মীরা বিভিন্ন যানবাহনে ভাঙচুর চালিয়েছে।

 

গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এই ঘটনা ঘটেছে নগরের কোতোয়ালি থানার দেওয়ানবাজার এলাকায়।

স্থানীয়রা ওই এলাকায় বিভিন্ন যানবাহন ভাঙচুরের কথা জানালেও পুলিশ তা অস্বীকার করেছে। কোতোয়ালি থানা পুলিশ বলছে, হামলাকারীরা হরতাল সমর্থক কি না তারা জানে না। তবে ভাঙচুরের পর ছাত্রলীগের স্থানীয় নেতাকর্মীরা এলাকায় হরতালবিরোধী মিছিল করেছে।

ঘটনাস্থলে যাওয়া কোতোয়ালি থানার এসআই আব্দুর রহিম সাংবাদিকদের বলেন, রাতে কে বা কারা হঠাত্ করে দেওয়ানবাজারের সাব-এরিয়ায় রাস্তায় নেমে গাড়ি ভাঙচুর করে। কয়টি গাড়ি ভাঙচুর হয়েছে তা জানতে পারিনি। আমরা ঘটনাস্থলে এসে ভাঙা গাড়ি পাইনি। ভাঙচুরকারীদেরও কাউকে পাওয়া যায়নি।

তিনি জানান, ঘটনাস্থলে ছাত্রলীগের ২৫-৩০ জন নেতাকর্মীকে হরতালবিরোধী মিছিল করতে দেখা যায়।

সম্ভবত হরতালকারীরা ভাঙচুর করেছে, এমন খবর পেয়েই তারা (ছাত্রলীগ) মিছিল নিয়ে এসেছে।

এদিকে জামায়াত-শিবিরের আকস্মিক গাড়ি ভাঙচুরের পর ওই এলাকায় জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। দেওয়ানবাজারের ওই সড়ক দিয়ে প্রায় আধাঘণ্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। ঘটনাস্থলের পাশেই মহানগর জামায়াতের কার্যালয়।  

ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ মিছিল বের করা হয়েছে জানিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহসম্পাদক ইয়াছির আরাফাত গতকাল রাত পৌনে ১০টার দিকে কালের কণ্ঠকে বলেন, জামায়াত-শিবিরের ১২-১৫ জন হঠাত্ রাস্তায় নেমে পাঁচ-ছয়টি গাড়ি ভাঙচুর করে। এর প্রতিবাদে ওই এলাকায় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা তাত্ক্ষণিক মিছিল করেছে। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সেখানে যেতে দেখে জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা পালিয়ে গেছে। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক।

ঘটনার বিষয়ে জানতে কোতোয়ালি থানার ওসি জসিম উদ্দিনের মোবাইল ফোনে বেশ কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি ফোন ধরেননি।


মন্তব্য