kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

চট্টগ্রামে গ্রেপ্তারকৃত যুবকের দাবি

নির্বাচনে 'পথের কাঁটা' সরাতে ছাত্রলীগ নেতাকে গুলি

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১২ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০২:০১



নির্বাচনে 'পথের কাঁটা' সরাতে ছাত্রলীগ নেতাকে গুলি

চট্টগ্রাম মহানগরের বাকলিয়া থানার ছাত্রলীগ নেতা এনামুল হক মানিককে (২৭) গুলি করার ঘটনায় জড়িত রমজান (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে বাকলিয়া থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত রমজান প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে দাবি করেছে, সিটি করপোরেশনের পরবর্তী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা মো. সোলাইমান। তাঁর নির্দেশ ও প্রলোভনে পড়ে বর্তমান কাউন্সিলর হাজি হারুনূর রশিদের বিশ্বস্ত অনুসারী ছাত্রলীগ নেতা মানিককে গুলি করে রমজান।

তবে পুলিশ পুরো ঘটনাকে এত সহজ সমীকরণ বলে মনে করছে না। এই কারণে রমজানকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আদালতে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানিয়েছে।

নগর পুলিশের উপকমিশনার (দক্ষিণ) এস এম মোস্তাইন হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, 'ছাত্রলীগ নেতা মানিককে গুলি করার কারণ সম্পর্কে গ্রেপ্তারকৃত সন্ত্রাসী রমজান তথ্য দিয়েছে। তার তথ্য যাচাই-বাছাইয়ের প্রয়োজনে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন। তিনি বলেন, 'রমজান সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে ছয়টি মামলা আছে।'

বাকলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ প্রণব চৌধুরী বলেন, নগরের চান্দগাঁও খাজা রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে রমজানকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রমজান জানিয়েছে আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ সোলাইমান তাকে নগদ টাকা ও চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে মানিককে গুলি করার নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, গত ১০ ডিসেম্বর রাতে পূর্ব বাকলিয়া ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মানিককে খুব কাছ থেকে গুলি করা হয়। তবে ভাগ্যক্রমে তিনি বেঁচে যান। বর্তমানে তিনি ঢাকায় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এই ঘটনায় মানিকের ভাই জাহেদুল হক বাদী হয়ে বাকলিয়া থানায় একটি হত্যাচেষ্টা মামলা করেন। এই মামলায় রমজান ছাড়াও সোলাইমান, তাজুল ইসলাম ও ইছা খান নামের আরো তিনজনকে আসামি করা হয়।



মন্তব্য