kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

মাদকসেবী পুত্রকে পুলিশে দিলেন মা

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০১:৪২



মাদকসেবী পুত্রকে পুলিশে দিলেন মা

ইয়াবা সেবনকারী পুত্রের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে দ্বিতীয়বারের মতো পুলিশের শরণাপন্ন হলেন মা। গতকাল মঙ্গলবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারকের কাছে মা দাবি করলেন সন্তানের দৃষ্টান্তমূলক সাজা। আদালত মাদক সেবনের দায়ে ছোটন দে (৩৫) নামের এ যুবককে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন। এর আগেও ছোটনকে পুলিশে সোপর্দ করলে ছয় মাসের সাজা হয়েছিল।

স্বজনরা জানায়, শহরের ঘোনারপাড়ার বাসিন্দা রত্না দে আয়া হিসেবে চাকরি করেন কক্সবাজার সিটি কলেজে। চার ছেলে ও এক মেয়ের মধ্যে তিনজনই কর্মজীবী। তৃতীয় সন্তান ছোটন দে সিলেট শহরে একটি জুয়েলারি দোকানে কর্মরত ছিল।

মা রত্না দে জানান, ছোটন দুই বছর আগে মাদকাসক্ত অবস্থায় সিলেট থেকে ফেরে। এরপর ইয়াবা কেনার টাকার জন্য অত্যাচার শুরু করে। এক হাজার টাকা নিয়ে চারটি ইয়াবা কিনে সে এক দিনেই সেবন করে। সিগারেটের জন্য দৈনিক আরো ২০০ টাকা দিতে হয়। একটি মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রে দেওয়া হলে তিন মাস পর ফিরে একই কাজ করছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি রনজিত কুমার বড়ুয়া বলেন, আগে একবার ভ্রাম্যমাণ আদালত মাকে মারধরের কারণে ছোটনকে ছয় মাসের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু চার মাস পর মা নিজেই তাকে মুক্ত করে আনেন। আবার একই ঘটনা।
এসআই সনজীত চন্দ্র নাথ জানান, সোমবার রাতে ছোটন মাকে মেরে রক্তাক্ত করলে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। সকালে ছোটনকে আটক করে থানায় নেওয়া হয়। বিকেলে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ কে এম লুত্ফুর রহমান ইয়াবা সেবনের দায়ে ছোটনকে এক বছরের কারাদণ্ড দেন।


মন্তব্য