kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

সরকারি সেফ হোম

আট কিশোরী পালানোর ঘটনায় চারজন গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ০৩:১০



আট কিশোরী পালানোর ঘটনায় চারজন গ্রেপ্তার

প্রতীকী ছবি

চট্টগ্রামে মহিলা ও শিশু-কিশোরী হেফাজতিদের নিরাপদ আবাসন (সেফ হোম) থেকে আট কিশোরী পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। গত বুধবার রাতে জেলার হাটহাজারীর ফরহাদাবাদের সরকারি সেফ হোম থেকে আট কিশোরী পালানোর পরদিন বৃহস্পতিবার একজনকে উদ্ধার করা হয়। অন্য সাত কিশোরীকে গত তিন দিনেও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে হাটহাজারী মডেল থানায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ ওই প্রতিষ্ঠানের দুই আনসার সদস্যসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- ওই প্রতিষ্ঠানের আনসার সদস্য জ্যোতি আক্তার (২১) ও অণিমা রায় (৩৫), আয়া নূরনাহার (৪৫) ও সহকারী কুক কোহিনুর বেগম (৩৭)।
হাটহাজারী মডেল থানার ওসি বেলাল উদ্দিন মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর জানান, দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে সেফ হোম কর্তৃপক্ষ গত বৃহস্পতিবার রাতে মামলা দায়ের করে। এরপর দুই আনসার সদস্যসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করে গতকাল শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

হাটহাজারী উপজেলার ফরহাদাবাদ এলাকায় সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহিলা ও শিশু-কিশোরী হেফাজতিদের নিরাপদ আবাসন কেন্দ্র থেকে গত মঙ্গলবার গভীর রাতে ডাইনিং রুমের গ্রিল কেটে আট কিশোরী পালিয়ে যায়। পরদিন সকালে সোমাইয়া আক্তার নামে একজনকে স্থানীয় নুর আলী মিয়া হাট এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়। অন্য সাতজনের খোঁজ পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় সমাজসেবা অধিদপ্তর, চট্টগ্রামের পরিচালক নাজনীন কাউসারকে প্রধান করে অতিরিক্ত পরিচালক বন্দনা দাশ ও উপপরিচালক শহীদুল ইসলামকে সদস্য করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। দায়িত্বরত দুই আনসার সদস্য এবং হোমের দুই কর্মচারীর গাফিলতির প্রমাণ পাওয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান তদন্ত কমিটির সদস্যরা।


মন্তব্য