kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

কবিরহাটে দলীয় কোন্দল

ছাত্রলীগ নেতা ও তার মাকে পিটিয়ে কুপিয়ে জখম

নিজস্ব প্রতিবেদক, নোয়াখালী   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০৪:০৮



ছাত্রলীগ নেতা ও তার মাকে পিটিয়ে কুপিয়ে জখম

নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলা ছাত্রলীগের নবনির্বাচিত সভাপতি জহিরুল ইসলাম রিয়াদ (২৩) ও তাঁর মা মনোজা বেগমকে (৪৫) কুপিয়ে-পিটিয়ে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা। মা-ছেলেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার ওটারহাট বাজারসংলগ্ন আশরাফপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ রয়েছে, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী জসিম উদ্দিন শাহিন কমিটিতে আসতে না পারায় তাঁর সমর্থকরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। ঘটনার পর থেকে তারা পলাতক রয়েছে। তাদের ধরতে অভিযানে নেমেছে পুলিশ।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গতকাল সন্ধ্যায় ছাত্রলীগ নেতা রিয়াদ উপজেলার বাটইয়া শ্রীনন্দি গ্রামে নানা বাড়ি থেকে তাঁর মা মনোজা বেগমকে মোটরসাইকেলে নিয়ে ফিরছিলেন। এ সময় ওটারহাট বাজারসংলগ্ন আশরাফপুর গ্রামে ওত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তাদের পথরোধ করে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে। পরে স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডাক্তার মহিউদ্দিন আজিম জানান, রিয়াদের অবস্থা আশঙ্কাজনক তাঁর জ্ঞান ফেরেনি। তবে মায়ের অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।

হাসপাতালে আহত ছাত্রলীগ নেতার মা মনোজা বেগম বলেন, 'আমি আমার সন্তানকে রক্ষা করতে গিয়ে আহত হয়েছি। হামলাকারীরা ছয়জন ছিল। এদের মধ্যে বেচু নামে এক সন্ত্রাসীকে চিনেছি।'

তিনি অভিযোগ করে আরো বলেন, 'গত ৭ ফেব্রুয়ারি কবিরহাট উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। এতে আমার ছেলে সভাপতি হয়। তবে বাটাইয়া এলাকার জসিম উদ্দিন শাহীন সভাপতি হতে পেরে সন্ত্রাসী দিয়ে এ হামলা চালিয়েছে।'

কবিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আমিন রুমি জানান, হামলাকারীরা ইয়াবাসেবী জসিম সভাপতি না হওয়ায় তারা এ হামলা চালিয়েছে। তাকে ধরার জন্য পুলিশকে অনুরোধ করা হয়েছে।

কবিরহাট থানার ওসি মির্জা হাসান বলেন, 'জসিমের সন্ত্রাসীরা এ হামলা চালিয়েছে। হামলাকারীদের  ধরার জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।'


মন্তব্য