kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

চট্টগ্রামে মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ জুন, ২০১৮ ১১:২৯



চট্টগ্রামে মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড

বন্দরনগরী চট্টগ্রামে আজ সোমবার ভোর ৪টা পর্যন্ত চলতি বর্ষা মৌসুমে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড করা হয়েছে। এর ফলে নগরীর বিভিন্ন এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। সীমাহীন ভোগান্তিতে পড়েছেন নিচু এলাকার বাসিন্দারা। যা চলতি বছরে বর্ষা মৌসুমে রেকর্ড। আজ সোমবার ভোর ৪টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় ২৩৯ দশমিক ৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে। পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিস এ তথ্য জানিয়েছে। পতেঙ্গা আবওহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ শ্রীকান্ত ও মিলি রহমান জানান, যেখানে বর্ষা মৌসুমে সাধারণত গড়ে ৪০-৬০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়, সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩৯ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এটি চলতি বর্ষা মৌসুমে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড।

শনিবার থেকে চট্টগ্রাম নগরে বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। রবিবার থেমে থেমে তা চলে দিনভর। কখনো ভারী বর্ষণ, আবার কখনো গুঁড়িগুঁড়ি। এই টানা বৃষ্টিতে দুর্ভোগে পড়েছে নগরবাসী। বৃষ্টিতে স্থবির হয়ে পড়েছে চট্টগ্রাম। বৃষ্টির কারণে মহানগরীর কোথাও হাঁটু সমান আবার কোথাও কোমর সমান পানি জমেছে সড়কের উপরই। সোমবার সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত অধিকাংশ এলাকায় সড়কের উপর পানি জমে আছে। এদিকে, ঈদে এই মৌসুমে নগরীর প্রায় সব মার্কেট ছিল ক্রেতাশূন্য। যারা বৃষ্টি উপেক্ষা করে কেনাকাটা করার জন্য বেরিয়েছিলেন, তাদের পড়তে হয়েছে চরম ভোগান্তিতে। রাস্তাঘাট ছিল অনেকটা যানবাহন শূন্য।

চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে চলাচল করতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তত্সংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপের কারণে উপকূলীয় এলাকা ও সমুদ্রবন্দরগুলোকে এ সতর্কতা সংকেত দেয়া হয়েছে। এদিকে বৃষ্টির কারণে বিভিন্নস্থানে জলাবদ্ধতা হচ্ছে। বর্ষণের ফলে নগরীর চকবাজার, বহদ্দারহাট, মুরাদপুর, স্টেশন রোড, রিয়াজউদ্দিন বাজার, দুই নম্বর গেটসহ বেশ কিছু এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়।

 


মন্তব্য