kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

সোহেল হত্যা মামলার অভিযোগপত্র

রাজনীতি নয়, খাবার সরবরাহ নিয়েই বিরোধ

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৩ জুন, ২০১৮ ০১:২২



রাজনীতি নয়, খাবার সরবরাহ নিয়েই বিরোধ

চট্টগ্রামের প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নাছিম আহমেদ সোহেল হত্যা মামলার অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করেছে চকবাজার থানা পুলিশ। এ ঘটনায় ছাত্রলীগ রাজনীতির কোন্দলে হত্যাকাণ্ড ঘটেছে এমন প্রমাণ পায়নি পুলিশ। তবে অনুষ্ঠানের খাবার সরবরাহ নিয়ে বিরোধ থাকার বিষয়ে তথ্য পেয়েছে পুলিশ। 

গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আল ইমরান খানের আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও চকবাজার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরিফ হোসাইন। এতে ১৮ জনকে আসামি করা হয়। 

এ বিষয়ে নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (প্রসিকিউশন) নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্তী জানান, ২০১৬ সালের ২৯ মার্চ প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সোহেলকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। হত্যাকাণ্ডের পর ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের নেতারা জানিয়েছিলেন, চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী (প্রয়াত) এবং সাধারণ সম্পাদক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারীদের মধ্যে কোন্দলের কারণেই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে। তবে তদন্তে মহিউদ্দিন ও নাছির অনুসারীদের রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কোনো বিষয় পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন পুলিশ পরিদর্শক আরিফ হোসাইন।

অভিযোগপত্রের তথ্য অনুযায়ী, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নাজমুল হক ও মো. ফয়সালসহ একটি গ্রুপ ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের ব্যবসা করতেন। তাঁদের প্রতিষ্ঠানের নাম গ্লোরিয়াস। ২০১৫ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ বিভাগের নবীনবরণ ও বিদায় অনুষ্ঠানে এই ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান খাবার সরবরাহ করেছিল।

২০১৬ সালে একই অনুষ্ঠানের সময় তাঁদের আবারও খাবার সরবরাহের অর্ডার দেওয়া নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে দুটি গ্রুপ তৈরি হয়। সোহেলসহ কয়েকজন ছাত্র মিলে নগরীর কাতালগঞ্জে ভিটাবেন ক্যাফে নামে একটি রেস্টুরেন্ট খুলেছিলেন। সোহেলদের বক্তব্য ছিল, ২০১৫ সালে গ্লোরিয়াসের সরবরাহ খাবারের মান খারাপ ছিল। এ জন্য তাঁরা ভিটাবেন থেকে খাবার সরবরাহ করবেন। মূলত এর থকেই দ্বন্দ্বের সূত্রপাত এবং হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

প্রাপ্ত তথ্য মতে, অভিযোগপত্রভুক্তরা হলেন ওয়াহিদুজ্জামান নিশান, জিয়াউল হায়দার চৌধুরী, এস এম গোলাম মোস্তফা, তামিম উল আলম, ইব্রাহিম সোহান, কাজী মো. জয়নাল আবেদীন, সাইফ উদ্দিন, মো. আবু জাহের উজ্জ্বল, সাইকুল ইসলাম তারেক, নুরুল ফয়সাল, মো. সাইফুল ইসলাম সাকিব, আবু ফয়েজ, রাশেদুল হক ইরফান, মো. নাজমুল হক, সোলায়মান বাদশা, আসিফ ও শামীম ওরফে ব্লেড শামীম।


মন্তব্য