kalerkantho


কমল প্রভায় অভিযান : আরো একজনের স্বীকারোক্তি

আদলত প্রতিবেদক   

১২ নভেম্বর, ২০১৭ ২১:৩৫



কমল প্রভায় অভিযান : আরো একজনের স্বীকারোক্তি

রাজধানীর মিরপুরে বর্ধনবাড়ি এলাকার কমল প্রভা নামের বাড়িতে জঙ্গিবিরোধী অভিযানের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া সৈয়দ নুরুল হুদা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। এ নিয়ে মামলার দুই আসামি স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তি দিলেন।

আজ রবিবার ঢাকা মহানগর হাকিম খুরশীদ আলম তার খাসকামরায় ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় আসামির দেওয়া জবানবন্দি গ্রহণ করেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠিয়ে দেন বিচারক।

অন্যদিকে পৃথক হাকিম লস্কার সোহেল রানা এ মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে রিমান্ডে থাকা আসামি মো. মাজহারুল ইসলামকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

উল্লেখিত দুই আসামি চারদিনের রিমান্ডে ছিলেন। গত ৭ নভেম্বর মঞ্জুর হওয়া রিমান্ড শেষে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-৪ এর উপপরিদর্শক আমিরুল ইসলাম আজ তাদের আদালতে হাজির করেন।

এক আবেদনে আসামি নুরুল হুদার স্বীকারোক্তি রেকর্ড করার আবেদন জানান। পৃথক আবেদনে মাজহারুল ইসলামকে কারাগারে পাঠানোর আবেদন করেন।

দারুস সালাম থানার প্রসিকিউশন শাখার সাধারন নিবন্ধন কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক মো. মিজান এ তথ্য জানান। তিনি জানান, গত ৮ নভেম্বর পাইলট সব্বির আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

গত ৪ সেপ্টেম্বর রাতে মিরপুরের বর্ধনবাড়ি এলাকায় জঙ্গি আস্তানা নামে খ্যাত কমল প্রভায় (পাইলট সাব্বিরের বাড়ি) অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানের সময় বাড়ির পঞ্চম তলায় সপরিবারে অবস্থানরত জঙ্গি মীর আকরামুল করিম ওরফে উপল ওরফে আবদুল্লাহ (৪৩) ও তার দুই স্ত্রী নাসরিন (৩৫) ও ফাতেমাসহ (২৫) তাদের দুই সন্তান ওসামা বিন আকরামুল (১০) ও ওমর বিন আকরামুল (৩) এবং দুই সহযোগী কামাল ও অজ্ঞাত ব্যক্তি আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটিয়ে মারা যায়। যদিও আইন-শৃংখলা বাহিনী তাদের আত্মসমর্পনের জন্য সময় দেয়। পরবর্তীতে পঞ্চম তলার ওই ফ্ল্যাট থেকে বিপুল পরিমাণ বোমা, গান পাউডারসহ ২৪ ধরনের আলামত উদ্ধার করে র‌্যাব। এরপর গত ৮ সেপ্টেম্বর রাজধানীর দারুস সালাম থানায় বিস্ফোরক আইনে মামলা করে র‌্যাব।

প্রসঙ্গত, পাইলট সাব্বিরের মা সুলতানা পারভীন ও আসামি মো. আলম আলম বর্তমানে দ্বিতীয় দফায় রিমান্ডে রয়েছে। এ ছাড়া পাইলট সাব্বির, আসিফুর রহমান, সাহাদাত হোসেন ওরফে আমির হামজা ও সম্রাট মিয়া কারাগারে আছে।


মন্তব্য