kalerkantho


উত্তরা আধুনিক মেডিক্যাল কলেজ

৫৭ শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রমে নিষেধাজ্ঞা হাইকোর্টের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ জানুয়ারি, ২০১৮ ০২:৫৫



৫৭ শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রমে নিষেধাজ্ঞা হাইকোর্টের

রাজধানীর উত্তরা আধুনিক মেডিক্যাল কলেজের চলতি (২০১৭-১৮) শিক্ষাবর্ষের ৫৭ শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রমের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন হাইকোর্ট। সাধারণ কোটায় ভর্তি হওয়া এসব শিক্ষার্থীকে শিক্ষা কার্যক্রম থেকে বিরত রাখতে কলেজ কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে ওই কলেজে আগে আসলে আগে ভর্তির সুযোগ'-এ পদ্ধতিতে ভর্তির প্রক্রিয়া কেন অবৈধ হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন উচ্চ আদালত।

বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল মঙ্গলবার এ আদেশ দেন।

তারিকুল ইসলাম নামের এক শিক্ষার্থীর বাবা নজরুল ইসলামের করা এক রিট আবেদনে এ আদেশ দেন আদালত। তাঁর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. আসাদুজ্জামান ও রেজিনা মাহমুদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

স্বাস্থ্যসচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও উত্তরা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষকে ১০ দিনের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আদালতের এ রুলের কপি বিশেষ বার্তাবাহকের মাধ্যমে পাঠাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু সাংবাদিকদের বলেন, মেধা স্কোর অনুযায়ী ভর্তি না করে Èআগে আসলে আগে ভর্তির সুযোগ' শিরোনামে গত বছর ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১৭ ডিসেম্বর সকাল ১১টার মধ্যে 'আগে আসলে আগে ভর্তির সুযোগ' পাবেন। নির্ধারিত দিনে সকাল ১১টার পর তারিকুল ইসলাম (মেধা স্কোর-২৫৭) কলেজে গিয়ে জানতে পারেন, ৫৭ জন শিক্ষার্থীর ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে গেছে। সেখানে ভর্তির সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ২৫০ দশমিক ৪৫।

রিট আবেদনে নজরুল ইসলামের দাবি, মেধা স্কোর অনুযায়ী ভর্তির সুযোগ থাকলে তারিকুল ইসলাম ভর্তির সুযোগ পেতেন।


মন্তব্য