kalerkantho


বাসায় পৌঁছেছেন খালেদা জিয়া

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩১ অক্টোবর, ২০১৭ ২৩:০৮



বাসায় পৌঁছেছেন খালেদা জিয়া

ফাইল ছবি

কক্সবাজার সফর শেষে রাজধানীর গুলশানের বাসায় পৌঁছেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। আজ মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে তিনি গুলশানের বাসায় পৌঁছেছেন।

এ সময় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমানউল্লাহসহ কয়েকজন নেতা দলীয় নেত্রীর সঙ্গে ছিলেন। এ তথ্য জানিয়েছেন চেয়ারপারসনের গণমাধ্যম শাখার কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান।

এর আগে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা ফেরার পথে ফেনীর মহিপালে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গাড়িবহরের বিপরীতে দুই বাসে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আজ মঙ্গলবার বিকেলে খালেদা জিয়ার গাড়িবহর চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। বিকেল পৌনে ৫টার দিকে বহরটি মহিপাল ফিলিং স্টেশন ও হোসেনীয়া মাদরাসা সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত 'আবার খাবো' হোটেলটি অতিক্রম করে। এর পরই কে বা কারা ওই হোটেলের সামনে গিয়ে দুটি বাসে পর পর চারটি বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়।

একইসঙ্গে  অগ্নিসংযোগ করে তারা। এ সময় এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি হলে লোকজন এদিক-ওদিক ছুটে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নেয়। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

বাস দুটি রাস্তার পাশে দাঁড়ানো ছিল। এ সময় বাসে কোনো যাত্রী ছিল না।
বাস দুটির একটি ফেনী থেকে লক্ষ্মীপুরগামী যমুনা ট্রান্সপোর্ট ও অপরটি ঢাকাগামী চৌদ্দগ্রাম ট্রান্সপোর্ট পরিবহনের ছিল। ঘটনার পর ফেনী ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, পুরাতন পুলিশ কোয়ার্টার এলাকা থেকে 'আবার খাবো' হোটেল হয়ে একটি রাস্তা মহিপালে মহাসড়কের সঙ্গে এসে মিলিত হয়েছে। এ রাস্তা ধরে ৮ থেকে ১০ জন তরুণ এসে ঘটনা ঘটিয়ে আবার দ্রুতবেগে পালিয়ে যায়। হামলাকারীদের বয়স ১৫ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে হতে পারে বলে তারা দাবি করেন। ওই সময় খালেদা জিয়ার গাড়িবহরকে স্বাগত জানাতে কয়েক শ দলীয় সমর্থক ওই এলাকায় ভিড় জমায়। ফলে সবার নজর বহরের দিকে থাকায় হামলার বিষয়টি প্রথমে কেউ লক্ষ্য করেনি। ঘটনার পর ফেনী জেলা প্রশাসক মনোজ কুমার রায় ও পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর আলম সরকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।


মন্তব্য