kalerkantho


বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল

দেশে একদলীয় বাকশালী শাসন সুপ্রতিষ্ঠিত করতেই বিরোধীদের গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৯ এপ্রিল, ২০১৮ ২১:৫৪



দেশে একদলীয় বাকশালী শাসন সুপ্রতিষ্ঠিত করতেই বিরোধীদের গ্রেপ্তার

আজ রবিবার বিকেলে বিএনপির ১৭ নেতাকর্মীকে আটক করায় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তীব্র নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে তাদের মুক্তির দাবি করেছেন তিনি।

রবিবার সন্ধ্যায় বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক বেলাল আহমেদের স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কণ্টকমুক্ত করার মাধ্যমে দেশে একদলীয় বাকশালী শাসন সুপ্রতিষ্ঠিত করতেই বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের লাগাতার গ্রেপ্তার, নির্যাতন ও নিপীড়নকে সর্বব্যাপী করে তুলেছে সরকার।

মির্জা ফখরুল বলেন, এ নির্যাতন ক্রমাগত তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। সরকারের নির্দয়-নিষ্ঠুর আচরণে এটি সুস্পষ্ট যে, তারা জোর করে ক্ষমতা ধরে রাখতে চায়। আর এ জন্য গণতন্ত্রকে নিঃশেষ করে ফেলছে। জনবিচ্ছিন্ন হওয়ার কারণে সরকার অমানবিক ও অগণতান্ত্রিক পথে হাঁটছে। জনগণকে ভয় দেখাতে তারা সন্ত্রাসের আশ্রয় নিয়েছে। জনগণকে ভয় পাইয়ে দিতে নিষ্ঠুরতার শেষ সীমানা অতিক্রম করেছে। ভয়াবহ দুঃশাসনে জনগণের ক্ষোভকে দমন-পীড়নের মাধ্যমে প্রতিরোধ করতে উন্মাদ হয়ে গেছে বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার।

তিনি বলেন, মিথ্যা ও সাজানো মামলায় কারাবন্দি সম্পূর্ণ নির্দোষ বিএনপি চেয়ারপারসন ও তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে চলমান আন্দোলনকে দমন করার উদ্দেশ্যেই বিএনপিসহ বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের ওপর জুলুম চালানো হচ্ছে এবং গ্রেফতার করা হচ্ছে। কিন্তু এসব নিপীড়ন করে সরকার যেমন জনগণের রোষ থেকে রেহাই পাবে না তেমনি দেশনেত্রীর মুক্তির আন্দোলনকেও বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না।

উল্লেখ্য, রাজধানীর বাংলামোটর থেকে রবিবার বিকেলে বিএনপির ১৭ নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ। তারা হলেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি এম শামসুল হুদা, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশীদ হাবিব, সহ-সভাপতি মো. ইউনুস মৃধা, গোলাম হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কে এম জোবায়ের এজাজ, আলমগীর হোসেন, অ্যাডভোকেট ফারুকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম পটু, কমিশনার রফিকুল ইসলাম রাসেল, সহ-সাধারণ সম্পাদক জামিলুর রহমান নয়ন প্রমুখ। বিষয়টি নিশ্চিত করে রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার জানান, বাংলামোটর রূপায়ন টাওয়ারে গোপন বৈঠক করার সময় তাদের আটক করা হয়।


মন্তব্য