kalerkantho


সরকার বিএনপিকে গৃহপালিত বিরোধী দল বানাতে চায় : ড. মঈন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ জুলাই, ২০১৮ ০৪:৪১



সরকার বিএনপিকে গৃহপালিত বিরোধী দল বানাতে চায় : ড. মঈন

ড. আব্দুল মঈন খান। ফাইল ছবি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেছেন, সরকার খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে আবারও ২০০৮ সালের মতো পাতানো নির্বাচন করে বিএনপিকে গৃহপালিত বিরোধী দল বানাতে চায়। সরকারের সেই প্রচেষ্টা সফল হবে না।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) আয়োজিত ‘খালেদা জিয়ার চিকিত্সায় অবহেলা ও মানবাধিকার লঙ্ঘন’ শীর্ষক আলোচনাসভায় ড. মঈন খান এ কথা বলেন।

মঈন খান বলেন, আগামী নির্বাচনের আগে সরকারকে অবশ্যই ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ তৈরিতে বাধ্য করা হবে। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের সরকার গঠন করা হবে। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের নির্বাচনে খালেদা জিয়া চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হবেন।

তিনি বলেন, বিএনপি কোথাও শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করতে পারে না। জাতীয় প্রেস ক্লাব বা দলীয় কার্যালয়ের সামনে যেখানেই যে কর্মসূচি দেওয়া হয়, সেখানে সরকার বাধা দিচ্ছে। হোক সেটি কালো পতাকা প্রদর্শন বা অনশন কর্মসূচি। শুধু বিএনপি নয়, যারাই আন্দোলন করছে, তাদের ওপর সরকার নির্যাতন করছে। কিছুদিন আগেও কোটা আন্দোলনকারীদের কিভাবে হামলা করে নিয়ন্ত্রণ করেছে। ভিন্নমতের যারাই কথা বলে, সরকার তাদের দমন করছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, বিএনপি আওয়ামী লীগ নেতাদের মতো লগি-বৈঠার আন্দোলন করতে পারে না। আমরা গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশ্বাস করি। তাই আমাদের আন্দোলন তাদের কাছে পছন্দ হবে না। আমরা আপনাদের একটি চ্যালেঞ্জ করি। আসুন, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে, ব্যারাকে রেখে রাস্তায় নামুন, আমরাও আসি। দেখি কার আন্দোলন কত বেশি হয়।’

ড্যাবের সভাপতি অধ্যাপক এ কে এম আজিজুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিএনপির শওকত মাহমুদ, ফরহাদ হালিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে খালেদা জিয়ার চিকিত্সা, ‘অবৈধ’ সাজা বাতিল এবং বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে তারেক জিয়া সাইবার ফোর্স নামের একটি সংগঠন আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান বলেন, শেখ হাসিনা যদি খালেদা জিয়াকে ছাড়া নির্বাচনের স্বপ্ন দেখেন, সেই নির্বাচন বাংলাদেশে আর হবে না, হতে দেওয়া হবে না। 

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ফাতেমা খানমের সভাপতিত্বে এবং দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে নাজিম উদ্দীন আলম, রফিক শিকদার প্রমুখ বক্তব্য দেন।



মন্তব্য