kalerkantho


শীতের স্টাইলিশ জুতা

জেঁকে বসেছে শীত। ফ্যাশনপ্রেমীরাও থেমে নেই। পরিপাটি পোশাকের সঙ্গে বেছে নিচ্ছেন পছন্দমতো জুতাও। মৌসুমের সঙ্গে স্টাইলের কথাও মাথায় রেখেছেন। এই শীতে জুতার ফ্যাশনে কী আছে নতুন, কী-ই বা চলছে ট্রেন্ড—সে কথাই জানালেন জিনাত জোয়ার্দার রিপা

১৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



শীতের স্টাইলিশ জুতা

মডেল : রূপকথা, ছবি : তারেক আজিজ নিশক, সাজ : হারমনি স্পা অ্যান্ড ক্লিওপেট্রা বিউটি স্যালন, জুতা : বাটা

শীতের ফ্যাশনে সবার আগে মনে রাখতে হবে, বছরের বাকি সময়ের চেয়ে এ সময় বাতাসে আর্দ্রতা থাকে কম। তাই সহজেই শুকিয়ে যায় ত্বক। আর পায়ের চামড়া তুলনামূলক পুরু হওয়ায় শুকিয়ে ফেটে যায়। জুতা নির্বাচনের ক্ষেত্রে স্টাইলেরও আগে তাই চলে আসে সুরক্ষার কথা। ম্যাটেরিয়ালের ক্ষেত্রে তাই সময়োপযোগী উপকরণ দরকার হয়—বললেন বাটার কালেকশনের সিনিয়র অফিসার আয়েশা আক্তার। জানালেন, মেয়েদের জুতায় বাহারি নকশা থাকে এই মৌসুমেও। এ সময় তরুণীরা খোলা জুতার চেয়ে পা বন্ধ থাকে—এমন জুতাই বেছে নেন সাধারণত। তবে নকশার ধরন কেমন হবে তা নির্ভর করে তিনি কোন পোশাকটি পরছেন তার ওপর।

মেয়েদের জুতায় শীতে স্নিকার, ক্যানভাস, ব্যালেরিনা, ব্যালেরিনা কাট নাগরা স্টাইল জুতা কিংবা হাই হিল, সেমি হিল জুতাও চলছে বেশ এই সময়ের ফ্যাশনে।

তরুণীর পরনের পোশাকটি যদি হয় পশ্চিমা ধাঁচের, তবে সহজেই তার সঙ্গে মানিয়ে যায় চলতি ট্রেন্ডের অনেক কিছুই। নকশায় সে ক্ষেত্রে বেছে নিতে পারেন স্নিকার বা ক্যানভাস। স্মার্ট লাগে ব্যালেরিনায়ও। বাটার স্নিকার বা ক্যানভাসের ম্যাটেরিয়ালে শীতে প্রাধান্য পাচ্ছে টেক্সটাইল, মাইক্রোফাইভার, সিন্থেটিক লেদার (কৃত্রিম চামড়া) আর সব সময়ের পছন্দ লেদারও। তবে খাঁটি চামড়ায় তৈরি জুতার দাম খানিকটা বেশি হওয়ায় বাকিগুলো জনপ্রিয় হয়ে উঠছে এ সময়। নাগালেই মিলে যাচ্ছে পছন্দের নকশার জুতাজোড়া।

জিন্সের সঙ্গে উঁচু হিল খুব একটা ট্রেন্ডি নয়। তবু স্টাইল যেহেতু একেবারেই ব্যক্তি পছন্দের বিষয়, তাই কেউ উঁচু হিল বেছে নিলেও মাথায় রাখতে হবে আরামের বিষয়টি। এমনিতে জিন্সে ফ্ল্যাট জুতা মানিয়ে যায় বেশ। ফ্ল্যাট জুতায় স্নিকার, ক্যানভাসের পাশাপাশি এখন ব্যালেরিনা তরুণীদের পছন্দের তালিকায় প্রথম দিকেই থাকে।

স্কার্ট বা লং গাউনের সঙ্গেও এই জুতাগুলো মানিয়ে যাচ্ছে। আর কেউ যদি হিল পরতে চান, তবে পা ঢাকা বক্স হিলে অনায়াসে থাকবেন স্বচ্ছন্দ। 

মডেল : ফারহা আমিন ও রূপকথা

সকালে হাঁটার অভ্যাস থাকলে কিংবা কাজের ধরনে দৌড়ঝাঁপ করার ব্যাপার থাকলে বেছে নিতে পারেন কেডস। তবে সে ক্ষেত্রে পোশাকটি যেন মানানসই হয়, সেদিকে খেয়াল রাখুন। কেডসের ব্যবহার পায়ের ক্লান্তি আনে না সহজে। সহজেই তাই দীর্ঘক্ষণ কাটিয়ে দেওয়া যায়। হিমেল হাওয়ায়ও দেয় আরাম।

পশ্চিমা পোশাকে এখন মেয়েরা বেছে নিচ্ছেন বুট কাট জুতাও। সিন্থেটিক লেদার ম্যাটেরিয়ালেও লুক দেওয়া হচ্ছে খাঁটি চামড়ার। লং সোয়েটার, স্কার্ট, জিন্স, টি-শার্ট, পুলওভার সব কিছুর সঙ্গেই মানিয়ে যায় এই জুতাগুলো।

বাঙালি নারীর পোশাকে পছন্দের তালিকায় প্রথমেই থাকে শাড়ি। আর শীতে তো উত্সব লেগেই থাকে। শাড়ি তাই পরাই হয়। এ ক্ষেত্রে শাড়ির সঙ্গে মানিয়ে শীতের পোশাকের স্টাইলে যেমন এসেছে ভিন্নতা, তেমনি বাদ যাচ্ছে না জুতার ফ্যাশনের দিকটিও। খোলা জুতার চেয়ে শীতে এগিয়ে থাকে পা বন্ধ জুতাগুলোই। এখন তো হাই হিল বা সেমি হিলেও শু স্টাইল বেছে নিচ্ছেন হালফ্যাশনে আগ্রহী তরুণীরা। ভুলছেন না শীতের হাওয়ায় ত্বক রক্ষার সঙ্গে আরামের কথাও।

যাঁরা কাপড়ের জুতা বেছে নিচ্ছেন এই শীতে, তাঁরা কেনার আগে কাপড়ের মান দেখে নিন। জুতা কতটা টেকসই হবে তা নির্ভর করে কাপড়ের মানের ওপরই। জুতা কেনার ক্ষেত্রে যদি বাজেট একটু কম হয়, তবে রেক্সিন ম্যাটেরিয়ালের জুতাও বেছে নিতে পারেন। মনের মতো নানা নকশা মিলছে রেক্সিনেও।

জুতার নকশার সঙ্গে রঙের বাছাইও জরুরি। এখন পোশাকের মতো জুতার ডিজাইনেও চলছে নানা রঙের মিশ্রণ। উজ্জ্বল রঙের রাজত্ব এখন জুতার ফ্যাশনেও। চিরায়ত সাদা, কালোর পাশাপাশি দাপটের সঙ্গে জায়গা করে নিচ্ছে লাল, কফি, সোনালি, রুপালি, ক্রিম, সবুজ। আছে মাল্টিকালার জারদৌসি নকশার জুতাও। ম্যাটেরিয়াল নাগরার কিন্তু নতুনত্ব এসেছে ব্যালেরিনা কাটে।

আপনার গন্তব্য কোথায়, অফিস নাকি ক্লাস, বন্ধুদের আড্ডা না উত্সব নাকি রাতের পার্টি—স্থানভেদে জুতার স্টাইলেও মনে রাখুন তা।

বাটা, গ্যালারি এপেক্স, হাসপাপিজ, লিবার্টি, জেনিস শীতের কথা মাথায় রেখে তরুণীদের জন্য বাজারে নিয়ে এসেছে শীত উপযোগী নকশার ব্র্যান্ডের জুতা। ব্র্যান্ড ছাড়াও এলিফ্যান্ট রোড, নিউ মার্কেট, চৌরঙ্গী মার্কেটে মিলছে বাজেটের নাগালের শীত নকশার জুতা।


মন্তব্য