kalerkantho


অনুষ্ঠিত হলো সোস্যাল এন্ট্রাপ্রনিউরশিপ সামিট

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২১:৩৭



অনুষ্ঠিত হলো সোস্যাল এন্ট্রাপ্রনিউরশিপ সামিট

গুলশানের ইম্যানুয়েলস হলে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয়ে গেল 'সোস্যাল এন্ট্রাপ্রনিউরশিপ সামিট ২০১৮।'  দেশের সকল পর্যায়ের সামাজিক উদ্যোক্তাদের একত্রীকরণ ও ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে স্বনামধন্য সামাজিক উদ্যোক্তা বিষয়ক যুব সংগঠন 'ইয়ুথ স্কুল ফর সোস্যাল এন্ট্রাপ্রেনার্স' (ওয়াই.এস.এস.ই.) এই  সামিটের আয়োজন করে। সামিটে বেশ কয়েকটি বিষয়ে অতিথিদের অংশগ্রহণমুলক আলোচনার পাশাপাশি দুটি প্যানেল আলোচনার আয়োজন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নরওয়ের রাষ্ট্রদূত সিডসেল বিলকেন এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটি সদস্য, সঙ্গসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক।

প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য ড.আব্দুল হান্নান চৌধুরী-এর বক্তব্যের মাধ্যমে সামিটের মূল পর্বের উদ্বোধন হয়। এরপর বক্তব্য রাখেন স্পৃহা বাংলাদেশের চিফ অপারেশন অফিসার রাশেদ নোমান, লেখক ও গবেষক ড. আলমাসুর রহমান ও ফায়ারফ্লেম মিডিয়ার প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী, এ্যালেক্স ম্যাকেন্জি।

বর্তমান বিশ্বে সামাজিক উদ্যোক্তাদের সফলতার কৌশল, বুদ্ধিদীপ্ত সামাজিক উদ্যোক্তা হবার জন্য করণীয়, বহুবিধ কাজে সম্পৃক্ত হওয়া প্রভৃতি বিষয় সম্পর্কে আলোচকরা আলোকপাত করেন।

প্রথম প্যানেল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন আই.এল.ও.এর এন্টারপ্রাইজ এ্যাডভাইজর, সৈয়দ নিয়াজ, হেলেন কেলার ইন্টারন্যাশনাল এর ডেপুটি কান্ট্রি ম্যানেজার, কারলো এন্টোনিও নিনো; মুসপানা এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ইঞ্জিনিয়ার আতিকুর রহমান সরকার ও এ্যালেক্স ম্যাকেন্জি।

বর্তমান বিশ্বে প্রথাগত ব্যবসায়ের পাশাপাশি সামাজিক উদ্যোগের প্রয়োজনীয়তা উঠে আসে আলোচনায়।

অনুষ্ঠানে উদ্যোক্তাদের উদ্ভাবনী প্রক্রিয়া নিয়ে বক্তব্য দেন তরু ইন্সটিটিউট অব ইনক্লুসিভ ইনোভেশনের হেড অব এন্টারপ্রাইজ ডিজাইন মনসুরুল আজিজ। প্রথম বাংলাদেশি দল হিসেবে হাল্ট প্রাইজ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে পৌছানো দলের সদস্য মির্জা তানজিম সামি তাদের উদ্যোক্তা হবার পেছনের কাহিনী তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানের অন্যতম চমক ছিল পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুততম মানব ক্যালকুলেটর ভানু প্রকাশ জোনালগ্যাদা যিনি তার উদ্যোক্তা জীবনের অভিজ্ঞতার কথা সবাইকে বলেন।
প্যানেল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন ব্রাক স্বজন এক্সচেঞ্জ এর কান্ট্রি ডিরেক্টর, সানজানা ফরিদ, উইমেন ইন ডিজিটাল এর প্রতিষ্ঠাতা, আসিয়া নীলা, প্রতিভার প্রধান নির্বাহ্ মাইশা লুবাবা ও আমাল ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা, ইসরাত করিম ইভ। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন স্টেপ গ্রপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, শামিম কবির। অনুষ্ঠানের শেষাংশে নিরাপদ ডেভলপমেন্ট ফাউন্ডেশন-এর প্রধান নির্বাহী ইবনুল সৈয়দ রানা, ইয়ুথ স্কুল ফল সোস্যাল এন্টাপ্রেনারশিপ এর পক্ষ হতে সবাইকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানান ও শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন।  

অতিথির বক্তব্যে নরওয়ের রাষ্ট্রদূত সিডসেল বিলকেন দেশের সামাজিক পরিবর্তনের জন্য তরুণ সামাজিক উদ্যোক্তা সামনে আসার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে 'সোশিয়প্রেনারস চ্যালেঞ্জ' এর বিজয়ী টিম হাইপ-এর হাতে পুরস্কার তুলে দেন সাংসদ নাহিম রাজ্জাক। তিনি সমাপনী বক্তব্যে দেশের বেসরকারি খাতকে সামাজিক উদ্যোগ খাতে আরো বেশী বিনিয়োগের জন্য উৎসাহিত করেন।


মন্তব্য