kalerkantho


জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষকের ‘লঘু’ শাস্তির সিদ্ধান্ত স্থগিত

পুনঃ তদন্ত কমিটি

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১ মে, ২০১৮ ০১:৩৩



শিক্ষকের ‘লঘু’ শাস্তির সিদ্ধান্ত স্থগিত

যৌন হয়রানির অভিযোগে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষক ড. মো. আব্দুল হালিম প্রামাণিকের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শাস্তিমূলক যে পদক্ষেপ নিয়েছিল, তা স্থগিত করা হয়েছে। পাশাপাশি গঠন করা হয়েছে পুনঃ তদন্ত কমিটি। তবে বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ড. মো. আব্দুর হালিম প্রামাণিকের সাময়িক বরখাস্তের আদেশ কার্যকর থাকবে।

ওই শিক্ষকের নামে নতুন করে অভিযোগ ওঠায় এবং অভিযোগকারীরা শাস্তির সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আবেদন জানানোয় গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পুনঃ তদন্তের সিদ্ধান্ত নেয়।

এর আগে ৭৭তম সিন্ডিকেট সভায় তিরস্কারের পাশাপাশি ওই শিক্ষকের পদোন্নতি নির্দিষ্ট সময়ের চেয়ে দুই বছর পর দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এ শাস্তিকে ‘লঘু’ দাবি করে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। গতকালও তারা ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করে। এ ছাড়া শাস্তি পুনর্বিবেচনার দাবি জানায় অভিযোগকারী দুই শিক্ষার্থী।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান জানান, গতকাল অভিযোগকারীরা ওই শাস্তিমূলক সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আবেদন জানায়। এ ছাড়া নতুন করে প্রাপ্ত অভিযোগের ভিত্তিতে পুনঃ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। পাঁচ সদস্যের এ কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. শওকত জাহাঙ্গীরকে।

উপাচার্য বলেন, ‘প্রথম কমিটির প্রতিবেদনে অভিযুক্ত শিক্ষকের আস্থা ছিল না। আর দ্বিতীয় কমিটির প্রতিবেদনে অভিযোগকারীদের আস্থা নেই। তাই নিজ ক্ষমতাবলে সিন্ডিকেটে সভার সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছি।’


মন্তব্য