kalerkantho


টেকনো ক্যামন এক্স প্রো; ২৪ মেগা পিক্সেল সেলফি ক্যামেরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ মে, ২০১৮ ২২:৩৩



টেকনো ক্যামন এক্স প্রো; ২৪ মেগা পিক্সেল সেলফি ক্যামেরা

সম্প্রতি বিশ্বের অন্যতম স্মার্টফোন নির্মাতা এবং বিপণনকারী প্রতিষ্ঠান টেকনো মোবাইল বাংলাদেশের বাজারে ক্যামন এক্স প্রো, ক্যামন এক্স  নামে তাদের নতুন দুইটি ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন উন্মোচন করেছে। বাজারে আসার পর থেকেই হ্যান্ডসেট দুইটি বাংলাদেশের ক্রেতা এবং ভোক্তাদের পছন্দের তালিকায় শীর্ষ স্থান দখল করে নিয়েছে, যার মধ্যে তুলনামূলক এগিয়ে রয়েছে টেকনো ক্যামন এক্স প্রো। স্মার্টফোনে, ফটোগ্রাফির প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে ক্যামন সিরিজের প্রতিটি স্মার্টফোনেই ক্যামেরা ফিচারে ভিন্নতা নিয়ে আসে টেকনো মোবাইল এবং ইতিমধ্যে বাংলাদেশের বাজারে ক্যামন সিরিজের প্রতিটি স্মার্টফোনই গ্রাহক সন্তুষ্টি আনতে সক্ষম হয়েছে। 

ইমপ্রেশনঃ
২৪ মেগাপিক্সেল সেলফি এবং ১৬ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরায় ব্যবহার করা হয়েছে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি; মোবাইল ফটোগ্রাফিতে ব্যবহারকারীর জন্য হবে নতুন অভিজ্ঞতা। ৬ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস ইনফিনিটি ডিসপ্লে স্ক্রিনে হ্যান্ডসেটটি যেকোনও দিক থেকেই ফ্ল্যাগশিপের যথার্থতা প্রমাণ করবে। ৪ জিবি র‍্যাম, ৬৪ জিবি ইন্টারন্যাল মেমোরির সাথে মিডিয়াটেক হেলিও চিপসেট এবং এন্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ ভার্সনে চালিত ক্যামন এক্স প্রো স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপের ব্যাপারেও গুরুত্ব রাখাহ হয়েছে। অন্যান্য ফিচার এবং কনফিগারেশন দিয়েও কাস্টমারদেরকে ইমপ্রেস করবে ক্যামন এক্স প্রো। 

ডিজাইন এবং ডিসপ্লে 
ক্যামন এক্স প্রো স্মার্টফোনের ১৮:৯ অনুপাতে ২১৬০*১০৮০ রেজ্যুলেশন, ফুল এইচডি প্লাস ডিসপ্লের সঙ্গে ২.৫ ডি কার্ভড গ্লাসের দারূণ কম্বিনেশন প্রথমেই আপনার নজর কাড়বে। ইনফিনিটি ডিসপ্লের সেনসিটিভ টাচ স্ক্রীন, দ্রুততম সময়ে রেসপন্স করবে এবং আপনার কাজকে করবে আরো সহজ। আকর্ষণীয় এবং প্রিমিয়াম আউটলুকে ডিজাইন করা হয়েছে ক্যামন এক্স প্রো স্মার্টফোনটি। স্লিম, স্মার্ট হ্যান্ডসেটের ইউনিবডি ডিজাইনের সাথে ইউনিফাইড কালারের সংমিশ্রণ, ক্যামেরার এক্স প্রো এর আউটলুক আরো স্টাইলিশ করেছে। পুরো ভিউ ডিসপ্লেতে কোনও ক্যাপ্যাসিটি বাটন নেই, পরিবর্তে অন-স্ক্রীন বাটন থাকে যা একটি ভিন্ন আকৃতিতে পরিবর্তনের সাথে সাথে অদৃশ্য করে রাখা যায়। 

ক্যামেরাঃ 
২৪ মেগাপিক্সেল সেলফি এবং ১৬ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরাতে ইমেজ ডেফিনেশন ব্যবহার করা হয়েছে, যা ছবিকে আরো বেশি স্পষ্ট করে তুলবে। কম আলোতে উজ্জ্বল ক্যাপচারের জন্য একটি, রিয়ার ক্যামেরায় থাকছে কোয়াড এলইডি ফ্ল্যাশ এবং সেলফি ক্যামেরায় ডুয়েল এলইডি ফ্ল্যাশ লাইট। ক্যামেরায় থাকা ডুয়েল ইমেজ প্রসেসিং টেকনোলজি দ্রুততার সাথে ক্যাপচার নিশ্চিত করবে। ছবি তোলার ক্ষেত্রে, ডার্ক স্টেট কমানোর জন্য ক্যামেরা মেমোরি কালার ফাংশন ২0% পর্যন্ত আপগ্রেড করা হয়েছে, যা ক্যাপচারের সময় প্রাকৃতিক রঙের সাথে সামঞ্জস্য রেখে আরো দারূন ছবি তুলতে সাহায্য করবে। 

ক্যামন এক্স প্রো ক্যামেরায় যা যা ব্যবহার করা হয়েছে,
আর্টিফিশিয়াল বিউটিফিকেশনঃ এআই বিউটিফিকেশনপ্রযুক্তি ডিভাইসের ক্যামেরায় স্টোর করা ২০০০+ ইমেজ ইফেক্ট থেকে সবচেয়ে উপযুক্তটি বেছে নিয়ে ক্যাপচারের মান বৃদ্ধি করবে।

পোর্ট্রেট বোকেহ মোডঃ পোর্ট্রেট ছবি তোলার ক্ষেত্রে ক্যামেরা ফিচারে থাকা বোকেহ মোড, ডিএসএলআর লেভেল সেলফি’র নিশ্চয়তা দেয়। 

লারজ অ্যাপারচারঃ স্বয়ংক্রীয়ভাবে ক্যামেরায় আরও বেশী আলো তৈরি করার জন্য ক্যামন এক্স প্রো স্মার্ট ফোনে থাকছে লারজ অ্যাপারচার।

ফোর ইন ওয়ান ইমেজিং টেকনোলজিঃ সেলফি এবং রিয়ার উভয় ক্যামেরাতে-ই ফোর ইন ওয়ান ইমেজিং টেকনোলজি থাকাতে ডিভাইসটির চারটি পিক্সেল ছবি তোলার সময় একসাথে কাজ করে। প্রতিটি ইমেজ হবে আরো বেশী স্পষ্ট এবং উজ্জ্বল।

থ্রি-এইচআরডি ফাংশনঃ থ্রি-এইচআরডি ফাংশন তিনটি ভিন্ন ভিন্ন এক্সপোজার এক অনুকূল ছবিতে যুক্ত করে গ্রাহকের জন্য একটি সেরা প্রভাব উপস্থাপন করে। তুলনামূলক উজ্জ্বল অংশটি সমানভাবে উজ্জ্বল, অন্ধকার অংশ পরিষ্কার এবং স্বাভাবিক অংশ আরও নিখুঁত করে তোলে।

কার্যক্ষমতা 
২.০ গিগাহার্জ অক্টাকোর প্রসেসর, ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি ইন্টারন্যাল স্টোরেজ (মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে ১২৮ জিবি পর্যন্ত এক্সটেনশন করা যাবে) এর ক্যামন এক্স প্রো স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও পি২৩ চিপসেট। নন-রিমুভেবল ৩,৭৫০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি থাকায় ক্যামন এক্স দীর্ঘসময় পর্যন্ত পারফর্ম করতে সক্ষম হবে। 

এন্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ ভার্সনে চালিত স্মার্টফোনটিতে থাকছে টেকনো’র নিজস্ব কাস্টমাইজ অপারেটিং সিস্টেম HiOS ৩.৩। এর মাধ্যমে আপনি সহজেই নিজের সাচ্ছন্দ্য অনুযায়ী নির্বাচন এবং পরিবর্তন করতে পারেন।

নিরাপত্তাঃ
ক্যামন এক্স প্রো হ্যান্ডসেটে টেকনোর নতুন সংযোজন ফেস আইডি প্রযুক্তি, যা ডিসপ্লের আলো ব্যহার করে ফোন আনলক করতে সক্ষম। ফেস রিকগনিশনে ৫০ মিলি সেকেন্ড এর চেয়েও কম সময় নেয় ক্যামন এক্স প্রো এবং ফিঙ্গারপ্রিন্ট এর চেয়েও অপেক্ষাকৃত দ্রুততার সাথে কাজ করে।

সিদ্ধান্তঃ
নিঃসন্দেহে ক্যামন সিরিজের বিশেষত্ব অনুযায়ী ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন হিসেবে টেকনো ক্যামন এক্স প্রো, অসাধারণ সেলফি ক্যামেরা, স্টাইলিশ ডিজাইন এবং দুর্দান্ত পারফর্মেন্স দিয়ে কাস্টমারদের সন্তুষ্টি নিশ্চিত করতে পারবে। তবে পরবর্তীতে ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন এর জন্য যে বিষয়গুলোতে টেকনো মোবাইল আরো বেশী গুরুত্ব দিবে আশা করি; জুম করে বা, দূর থেকে ক্যাপচারের সময় ক্যামেরা পারফর্মেন্স এবং স্মার্টফোনের মেটালিক বডি।

হ্যান্ডসেটটির বাজার মূল্য ২২,৯৯০ টাকা। মিডনাইট ব্ল্যাক এবং ব্রডেক্স রেড; দুইটি ভিন্ন রঙে সারাদেশে পাওয়া যাচ্ছে টেকনো মোবাইলের ব্র্যান্ড আউটলেট এবং রিটেইল শপে। 

মোবাইল হ্যান্ডসেটের কোয়ালিটি নিয়ে গ্রাহকদের চিন্তামুক্ত রাখতে, টেকনো মোবাইল তাদের প্রতিটি হ্যান্ডসেটে ১৩ মাসের ওয়ারেন্টির পাশাপাশি, বিক্রয়োত্তর ১০০ দিন পর্যন্ত রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি দিচ্ছে; যা নিশ্চিত করে থাকে ট্রানশান হোল্ডিংস এর সার্ভিসিং ব্র্যান্ড কার্লকেয়ার ।


মন্তব্য