kalerkantho


বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হচ্ছে ওয়ালটন ফ্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক    

২৪ জুন, ২০১৮ ১৩:০২



বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হচ্ছে ওয়ালটন ফ্যান

অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রিক ও রিচার্জেবল ফ্যান তৈরি করছে ওয়ালটন। নিজস্ব কারখানায় তৈরি এসব ফ্যানে ব্যবহৃত হচ্ছে উন্নতমানের কাঁচামাল। দৃষ্টিনন্দন ডিজাইন, সাশ্রয়ী মূল্য, বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী এবং সহজলভ্য বিক্রয়োত্তর সেবার কারণে ক্রেতাপছন্দের শীর্ষে উঠে আসছে ওয়ালটন ফ্যান।

আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন ওয়ালটন ফ্যান রপ্তানি হচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। বিশ্ববাজার সম্প্রসারণে কাজ করছে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন মাইক্রো-টেক করপোরেশনে গড়ে তোলা হয়েছে ফ্যান তৈরির আধুনিক কারখানা। যুক্ত হয়েছে জার্মানি, জাপান, তাইওয়ানের অত্যাধুনিক মেশিনারিজ ও প্রযুক্তি। রয়েছে ডিজাইন, মান নিয়ন্ত্রণ এবং পণ্য গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগ। উচ্চ শিক্ষিত, মেধাবী ও দক্ষ প্রকৌশলী এবং টেকনিশিয়ানদের নিয়ে তৈরি করা হয়েছে একটি শক্তিশালী কর্মীবাহিনী। যারা প্রতিনিয়ত গবেষণার মাধ্যমে দেশেই উৎপাদন করছে উচ্চ গুণগত মানসম্পন্ন বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রিক ফ্যান বা পাখা।

ওয়ালটন কারখানায় তৈরি ফ্যানের মধ্যে রয়েছে সিলিং, ওয়াল, টেবিল, রিচার্জেবল এবং প্যাডেস্টাল ফ্যান। দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রপ্তানির লক্ষ্যে এসব ফ্যানের মান নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে কঠোরভাবে। মান নিয়ন্ত্রণে অনুসরণ করা হচ্ছে ইন্টারন্যাশনাল ইলেকট্রো টেকনিক্যাল কমিশন (আইইসি)-এর স্ট্যান্ডার্ড।

ওয়ালটনের আন্তর্জাতিক বিপণন বিভাগের প্রধান মো. রকিবুল ইসলাম বলেন, ইতিমধ্যে নেপাল, নাইজেরিয়া, পূর্ব তিমুর ও সিসেলসে ফ্যান রপ্তানি হয়েছে। খুব শিগগির আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য এবং এশিয়ার অন্যান্য দেশেও যাচ্ছে ওয়ালটন ফ্যান।

ওয়ালটন ফ্যান আরএনডি বিভাগের ইনচার্জ প্রকৌশলী রুবেল আহমেদ বলেন, স্থানীয় বাজারে নিম্নমানের সিলিং ফ্যানের বডি ও পাখা তৈরিতে ব্যবহার করা হয় এমএস শিট অথবা কাস্ট আয়রন এবং প্লাস্টিক। ফলে, বাতাসের ধাক্কায় বা বেগের কারণে ধীরে ধীরে এর পাখার ডিজাইন অ্যাঙ্গেল পরিবর্তন হয়ে যায়। কমে যায় বাতাস। মরিচা পড়ায় স্থায়িত্ব কম হয়।

এসব ফ্যানের আর্মেচার বা কয়েলে কপার কোটেড অ্যালুমিনিয়াম তার ব্যবহার করায় মোটর দুর্বল হয়। অতিরিক্ত গরম হয়ে মোটর পুড়ে যায়। বিদ্যুৎ খরচ হয় বেশি, ওয়াট রেটিং বেশি হয় এবং গতিও কমতে থাকে। ম্যাগনেটিক শব্দ বেড়ে যায়। সাধারণ মানের বিয়ারিংয়ে  গতি কমে যন্ত্রণাদায়ক শব্দ সৃষ্টি হয়।

অন্যদিকে, উন্নতমানের অ্যালুমিনিয়াম দিয়ে তৈরি হচ্ছে ওয়ালটন সিলিং ফ্যানের বডি ও পাখা। বাতাসের ধাক্কায় পাখার ডিজাইন অ্যাঙ্গেল পরিবর্তন হয় না। বাতাসও বেশি দেয়। মরিচা পড়ে না। ফলে টেকে অনেক বছর। ফ্যানে ব্যবহৃত মোটরের সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত করতে বাংলাদেশে ওয়ালটনই প্রথম ব্যবহার করছে ইনলাইন কপার ভারনিশিং প্রসেস। 



মন্তব্য