kalerkantho


যুবলীগ কর্মী নিহত হওয়ার ঘটনায়

নড়িয়ায় ৮২ জনকে আসামি করে মামলা

শরীয়তপুর প্রতিনিধি    

১৩ আগস্ট, ২০১৭ ২০:৪৪



নড়িয়ায় ৮২ জনকে আসামি করে মামলা

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার রাজনগর মালতকান্দি গ্রামে গত শুক্রবার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষে যুবলীগ কমী ইকবাল হোসেন ফকির নিহতের ঘটনায় ৮২ জনকে আসামি করে আজ রবিবার নড়িয়া থানায় একটি মামলা হয়েছে।  

পুলিশ ঘটনার দিন রাতে ৭ জনকে গ্রেপ্তার করলেও পরে নতুন করে কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। মামলার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে মালতকান্দি পরো এলাকা পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে।  

নড়িয়া থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার রাজনগর ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে যুবলীগ কর্মী নিহতের ঘটনায় দুইদিন পর আজ রবিবার নিহতের বাবা নুরুল আমিন ফকির বাদী হয়ে স্থানীয় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন গাজীকে প্রধান আসামি করে ৮২ জনের নাম উল্লেখ করে এবং আরো ৪০/৫০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে নড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।  

এর পূর্বে ঘটনার দিন গত শুক্রবার গভীর রাতে পুলিশ সম্রাট গাজি (২৫) আ. কুদ্দুছ বেপারী (৫৩) নিরব বেপারী (২০) সিরাজুল মোল্যা (৫৫) আলীমুজ্জামান মীরবহর (৪৫) আ. সাত্তার মাদবর (৫২) মায়া বেগম (৪৫) সহ ৭ জনকে আটক করে।  

রবিবার দুপুরে নড়িয়া থানা পুলিশ আটককৃত ৭ জনকে আদালতে সোপর্দ করা করেছে। এরপর পুলিশ নতুন করে কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এদিকে মামলার খবর পেয়ে মালতকান্দি গ্রাম পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে। এলাকায় সংঘাত এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে।  


মন্তব্য