kalerkantho


'আইনের শাসন দেখিয়ে অপকর্ম করার দিন ফুরিয়ে গেছে'

ঝালকাঠি প্রতিনিধি   

১৩ আগস্ট, ২০১৭ ২২:০৪



'আইনের শাসন দেখিয়ে অপকর্ম করার দিন ফুরিয়ে গেছে'

ছবি : কালের কণ্ঠ

প্রধান বিচারপতিকে উদ্দেশ্য করে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, আইনের শাসন দেখিয়ে অপকর্ম করার দিন ফুরিয়ে গেছে। তিনি বলেন, আইনের শাসনের নামে বেআইনি ও সংবিধান পরিপন্থি কাজ হবে, আইনের শাসনের নামে সংসদের সঙ্গে কনটেস্ট করা হবে, দেশের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা হবে এটাকে আইনের শাসন বলা যাবে না। আজ রবিবার বিকেলে ঝালকাঠির শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে জেলা ছাত্রলীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন।   

তিনি বলেন, রায় নিয়ে কথা বললে যদি সংবিধানের বিরোধিতা করা হয়, সেই রায়ের ভেতরে যদি সংবিধান বিরোধী কিছু থাকে, সংবিধানের মধ্যে যা লিপিবদ্ধ আছে, তা নিয়ে যদি কটাক্ষ করা হয়, নিশ্চই সেটা সংবিধান বিরোধী। আগে সেটার বিচার হতে হবে।  

শিল্পমন্ত্রী আরও বলেন, আজকে অনেকে আওয়ামী লীগকে সংবিধান শিখায়। বৈদ্যনাথ তলায় বঙ্গবন্ধুকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত করে যে সরকার গঠন করার সপথ গ্রহন অনুষ্ঠান হয়, সেখানের ইস্তেহার সবকিছু আজকে সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত। সেইখানে যদি কোন আঘাত আসে, সংবিধান নিয়ে যদি কটাখ্য করা হয়, সেটা কি সংবিধান পরিপন্থি নয়।  

যখন পাকিস্তানিরা বুঝতে পেরেছিল শেখ মুজিবুর রহমানের কণ্ঠ স্তব্ধ করতে হলে তাকে ফাঁসি দিবে, তাকে ফাঁসি না দিলে পাকিস্তান রক্ষা করা যাবে না। তখন তারা মাহামুদুর রহমান নামে এক বিচারক দিয়ে আগরতলা মামলা শুরু করেছিল। কিন্তু সেই মামলার বিচারক পালাবার পথ খুঁজে পায়নি।

সুতরাং কথাবার্তা বলার আগে যে অবস্থানে যিনিই থাকেন না কেন চিন্তা ভাবনা থাকতে হবে।  

বঙ্গবন্ধু এই দেশের শুধু নয়, আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন নন্দিত একজন শ্রেষ্ঠ নেতা। সেই বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আমাদের দেশের কোন ব্যক্তি যদি হেয়প্রতিপন্ন করে নিশ্চই সেটা দেশবাসী মেনে নেবে না। আজকে এই ধরণের ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে হবে।  

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার মো. শাহ আলম, সাধারণ সম্পাক খান সাইফুল্লাহ পনির, যুগ্ম সম্পাদক সুলতান হোসেন খান, পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. এস এম আল-আমিন প্রমূখ।  


মন্তব্য