kalerkantho


ইসলামপুরে জনতার হাতে দুই প্রতারক আটক

জামালপুর প্রতিনিধি   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২২:৩৮



ইসলামপুরে জনতার হাতে দুই প্রতারক আটক

ছবি: কালের কণ্ঠ

ইসলামপুরে এনজিও কর্তৃপক্ষ সেজে চাকরির প্রলোভনে বেকার যুবকদের নিকট থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে ইমদাদুল হক মিলন (৪৫) ও শাহিন মিয়া (৪৪) নামের দুই প্রতারককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, জনস্বাস্থ্য উন্নয়ন সংস্থা রেজি নং চুয়াডাঙ্গা ২০৮/৩ইং পরিচয়ে একটি ভুয়া এনজিও’র কর্তৃপক্ষ সেজে দুই প্রতারক সম্প্রতি ইসলামপুর উপজেলার বেলগাছা ও চিনাডুলী ইউনিয়নে হাঁস-মুরগি উন্নয়ন প্রকল্প নামে একটি ভুয়া প্রকল্প বাস্তবায়নের তৎপরতা শুরু করে।

সেই লক্ষে তারা ইসলামপুরের প্রতি ইউনিয়নে ১ জন করে সুপারভাইজার ও ১২ জন করে মাঠকর্মী নিয়োগ করার আশ্বাসে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও সচিবদের চিঠি দিয়েছিল।

ইসলামপুরের চিনাডুলী ইউপি চেয়ারম্যান আ. ছালাম জানান, ইমদাদুল হক মিলন ও শাহিন মিয়া নামের ওই দুই প্রতারক জনস্বাস্থ্য উন্নয়ন সংস্থা নামের একটি এনজিও'তে স্থানীয় বেকার যুবকদের চাকরি দেওয়ার আশ্বাসে চিঠি দিয়েছিল। ওই দুই প্রতারক বেকার যুবকদের সুপারভাইজার পদে ১২ হাজার ৫০০ টাকা এবং মাঠকর্মী পদে ৭ হাজার ৫০০ টাকা মাসিক বেতন দিতে চেয়েছিল। তবে চাকরিতে নিয়োগের বিপরীতে প্রত্যেকের নিকট ২৫ হাজার টাকা করে জামানত দাবি করেছিল।

ইসলামপুরের চিনাডুলী ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে মঙ্গলবার সকালে ওই প্রতারকদ্বয় এলে চাকরি প্রার্থীরা জামানতের টাকা দিয়ে নিয়োগপত্র নেওয়ার জন্য জমায়েত হয়। এ খবর পেয়ে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ডাংধরা ইউনিয়নের সচিব ফরিদ খান চিনাডুলী ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে এসে হাজির হন। সেখানে এসে সচিব ফরিদ খান অভিযোগ করেন, ডা. হাবিবুর রহমান ওরফে ইমদাদুল হক মিলন ও সহযোগী শাহিন মিয়া দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ডাংধরা ইউনিয়নে একই ভুয়া প্রকল্পে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়েছে। এ ঘটনা জেনে এলাকাবাসী প্রতারকদের আটক করে ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে আনে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম এহছানুল মামুন প্রতারকদ্বয়কে জিজ্ঞাসাবাদ করে ইসলামপুর থানায় সোপর্দ করেন।

আটককৃত প্রতারক ইমদাদুল হক মিলন (৪৫) ওরফে ডা. হাবিবুর রহমান ওরফে সাবেক সংসদ সদস্য মোজাম্মেল হক, চুয়াডাঙ্গা-২, পিতা- ইসলাম উদ্দিন মন্ডল, গ্রাম বেড়াখালী, পোস্ট জোড়াদহ, উপজেলা-হরিণাকুন্ড, জেলা- ঝিনাইদহ। অপরজন মো. শাহিন মিয়া (৪৪), পিতা- রবিউল ইসলাম, গ্রাম- গোপাঘাটা, উপজেলা- গোবিন্ধপুর, জেলা-ঝিনাইদহ বলে জানা গেছে।

ইসলামপুর থানার ওসি দ্বীন-ই আলম জানান, স্থানীয় জনতার হাতে আটক দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে কেউ কোনো লিখিত অভিযোগ করেনি। তাই তাদেরকে ৫৪ ধারা মুলে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।


মন্তব্য