kalerkantho


কলারোয়া সীমান্তে ১৮ রোহিঙ্গা উদ্ধার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি    

১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ১৪:৫০



কলারোয়া সীমান্তে ১৮ রোহিঙ্গা উদ্ধার

অবৈধ পথে ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশের সময়  কলারোয়ার হিজলদি সীমান্ত থেকে নারী,পুরুষ ও শিশুসহ ১৮ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করেছে বিজিবি। আজ শুক্রবার ভোরে তারা কলারোয়া উপজেলার হিজলদী সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশের অভ্যান্তরে প্রবেশ করে।

আটককৃত রোহিঙ্গারা হলেন-রুপিয়া খাতুন(৩৫), রোকেয়া(২৫), আবু তাহের(৩০), আব্দুর রহিম(২৬), রেহেনা বেগম(২৩), আলিমুদ্দীন(২২)। আর বাকি সকলেই শিশু যাদের বয়স ০১-০৭ বছরের মধ্যে, এরা হলো- শাহরুখ খান,আজিজুর রহমান,জিয়ারুল ইসলাম,জুরাইদ,এনায়েতুর রহমান,মাহবুবুর রহমান,জুবায়ের,সুফিয়া খাতুন,রাশিদা বেগম,গুলশানআরা,সুমাইয়া বিবি,সালমা খাতুন।

এ ব্যাপারে কলারোয়া হিজলদী বিওপি ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার ওমর ফারুখ জানান, চন্দনপুর ইউনিয়নের সুলতানপুর গ্রামে ১৮ রোহিঙ্গা প্রবেশ করে ঘুরাঘুরি করার সময় স্থানীয় ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম তাদের 
নাম-পরিচয় জিজ্ঞাসা করলে তারা মিয়ানমারের নাগরিক বলে জানান। পরে ইউপি সদস্য নজরুল স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় তাদেরকে উদ্ধার করে বিজিবির কাছে হস্তান্তর করে।  

আটককৃতদের বরাত দিয়ে বিজিবি সদস্যরা জানান, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ ভারতের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার স্বরুপনগর থানার গুন্নাছপুর এলাকায় বসবাস করতো। তারা নতুন রোহিঙ্গা নয় তাদেরকে ধরে বিএসএফ গতকাল রাতে হিজলদি সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে ঠেলে দিয়েছে।  

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তারা ইউপি সদস্য নজরুল ইসলামের বাড়িতে বিজিবি প্রহরায় আশ্রিত ছিল। মানাবিক কারণে স্থানীয় গ্রামবাসী তাদেরকে খাদ্য সহায়তা করছে।

 


মন্তব্য