kalerkantho


কেরানীগঞ্জে জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী

'বিদ্যুতে মোবাইল ও অনলাইন বিলিং সিস্টেম চালু হবে'

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি    

১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ১৯:৪৮



'বিদ্যুতে মোবাইল ও অনলাইন বিলিং সিস্টেম চালু হবে'

"সারা দেশে বিদ্যুতে মোবাইল ও অনলাইন বিলিং সিস্টেম চালু করা হচ্ছে। অনলাইন বিলিং সিস্টেম চালু হলে বিদ্যুৎ বিল নিয়ে কোনও  ভোগান্তি থাকবে না, থাকবে না কোনও সিস্টেম লস।

এ সিস্টেমে ঘরে বসে মুঠোফোনেও বিদ্যুৎ বিল দেওয়া যাবে। "

আজ শুক্রবার বিকেলে ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ৪ আয়োজিত  উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বিদ্যুৎ-জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু। এ সময় তিনি সুইচ টিপে ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ৪  এর অফিস, বহুতল ভবন, চারটি ৩৩/১ কেভি ২০ এমিভিএ উপকেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর ও একটি উপকেন্দ্র উদ্বোধন করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, "সারা দেশে প্রিপেইড মিটার স্থাপন করা হচ্ছে। এ জন্য প্রায় দুই কোটি মিটার প্রয়োজন। ইতিমধ্যে কেরানীগঞ্জে পাঁচ  হাজার মিটার দেওয়া হয়েছে আরও ৫৩ হাজার দেওয়া হবে। " তিনি বলেন, "২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে সারা দেশে শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় নিয়ে আসা হবে। "

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, "কেরানীগঞ্জে বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে। সে জন্য পাইলট প্রকল্পের কাজ চলছে।

এ জন্য কেরানীগঞ্জের উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউপি চেয়ারম্যানদের বলা হয়েছে আপনারা বাড়িঘরের বর্জ‍্য ভালোভাবে মানুষ দিয়ে সংগ্রহ করে এক জায়গায় ডাম্পিং করে পরে সেটা বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎকেন্দ্রে পৌঁছে দেবেন। এ জন্য প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদের প্রত্যেক বাড়ি থেকে বর্জ্য  আনার জন্য ভ্যানগাড়ি পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের দেওয়া হয়েছে। "

ঢাকা পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি ৪ এর বোর্ড সভাপতি মো. শোয়েবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য দেন  বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন ও কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ। আরও বক্তব্য দেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহে এলিদ মাইনুল আমীন ও জিনজিরা ইউপি চেয়ারম্যান হাজি সাকুর হোসেন সাকু।

এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাকিব হোসেন, তেঘরিয়া ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মো. জজ মিয়া, আগানগর ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর শাহ খুসি, কলাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান তাহের আলী ও তারানগর ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ফারুক প্রমুখ।  


মন্তব্য