kalerkantho


সিডরে নিহতদের স্মরণে কলাপাড়ায় মোমবাতি প্রজ্বলন

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি   

১৪ নভেম্বর, ২০১৭ ২১:৩১



সিডরে নিহতদের স্মরণে কলাপাড়ায় মোমবাতি প্রজ্বলন

ছবি: কালের কণ্ঠ

ঘূর্ণিঝড় সিডরের আঘাতে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় নিহতদের আত্মার শান্তি কামনায় মোমবাতি প্রজ্বলন ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর কলাপাড়া প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে ক্লাব মিলনায়তনে কলাপাড়ার বিভিন্ন স্তরের মানুষের অংশগ্রহণে 'আগুনের পরশ মনি ছোয়াও প্রাণে, এ জীবন পূণ্য করো, দহন দানে-আগুনের পরশ মনি ছোয়াও প্রাণে' গুরু গাম্ভীর্যের গান বাজিয়ে নিহতদের স্মরণে ১০৪টি মোমবাতি প্রজ্বলন করা হয়।

এতে সহায়তা করেন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ওয়ার্ল্ড কনসার্ন বাংলাদেশ। মোমবাতি প্রজ্বলনের সূচনা করেন কলাপাড়া পৌরসভার মেয়র বিপুল চন্দ্র হাওলাদার।

আগামীকাল ১৫ নভেম্বর সিডরের ১০ বছর পূর্ণ হবে। '২০০৭ সালে প্রলয়ংকরি ঘূর্ণিঝড় সিডর এ উপকূলের ওপর দিয়ে বয়ে যায়। এতে শুধু আমরা নই, গোটা দক্ষিণ উপকূল বিধ্বস্ত হয়েছিল। ব্যাপক প্রাণহানি হয়েছিল। সিডরের দুঃসহ স্মৃতি এখনো অনেকে বয়ে বেড়ায়। ঘূর্ণিঝড় সিডরের তান্ডবে কলাপাড়া উপজেলায় ১০৪ জন মানুষ মারা যায়। এ উপকূলের বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়।

বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো বিধ্বস্ত হয়। গ্রামীণ যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে মোমবাতি প্রজ্বলনের মাধ্যমে সিডর দিবসটি পালনের খবর শোনার পর সন্ধ্যা হওয়ার আগেই কলাপাড়া প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা, বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধি, গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত হন। ঠিক সন্ধ্যা ৭টার সময় সিডরে নিহতদের স্মরণে উপস্থিত এ সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করেন।

কলাপাড়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন মাননু'র সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কলাপাড়া পৌরসভার মেয়র বিপুল চন্দ্র হাওলাদার। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজনের সভাপতি শামসুল আলম, বেসরকারি সংস্থা ওয়ার্ল্ড কনসার্নের উপজেলা সমন্বয়কারী জেমস রাজিব বিশ্বাস প্রমুখ।


মন্তব্য