kalerkantho


প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় আটক ৯, পরীক্ষা স্থগিত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৩:২৮



প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় আটক ৯, পরীক্ষা স্থগিত

প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে প্রথম দিনের বাংলা পরীক্ষা স্থগিত হওয়ার পর এবার দ্বিতীয় দিনে দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির ইংরেজি প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে মুন্সীগঞ্জে সব পরীক্ষা স্থগিত করেছে প্রশাসন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে সরকারি হরগঙ্গা কলেজের ৯ শিক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ। আজ বুধবার ফের ইংরেজি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে সব বিষয়ের পরীক্ষা স্থগিত করে জেলা প্রশাসক।


আরো পড়ুন:


জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা জানান, মঙ্গলবার জেলার ৬০৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা শুরু হয়। প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে সদর উপজেলার ১১৯টি বিদ্যালয়ের বার্ষিক পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। নতুন প্রশ্নপত্র দিয়ে ১৭ তারিখ থেকে ফের পরীক্ষা শুরু হবে।

এদিকে, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এ কে এম শওকত আলম মজুমদারকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। বাকি দুই সদস্য হলেন-সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুরাইয়া জাহান (ইউএনও) ও জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা পঞ্চানন বালা।


আরো পড়ুন:


মুন্সীগঞ্জ সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসাইন জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে সরকারি হরগঙ্গা কলেজের ছাত্রাবাসে তিনজন ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর থানার ওসি (তদন্ত) মঞ্জুর মোর্শেদ পুলিশের একটি টিম নিয়ে অভিযান চালিয়ে নয় শিক্ষার্থীকে আটক করেছে। তাদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে প্রশ্নপত্র ফাঁসের প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

 


মন্তব্য