kalerkantho


মোহনপুরে যুবদল-ছাত্রলীগের আলোচনা সভা নিয়ে উত্তেজনা, ১৪৪ ধারা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২১:৫০



মোহনপুরে যুবদল-ছাত্রলীগের আলোচনা সভা নিয়ে উত্তেজনা, ১৪৪ ধারা

রাজশাহীর মোহনপুরের কেশরহাটে বিজয় দিবসের আলোচনা সভাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় যুবদল ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হওয়ায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। এতে করে দুই সংগঠনেরই আলোচনা সভা ভেস্তে যায়। 

উপজেলা প্রশাসন সূত্র মতে, মোহনপুর যুবদলের আয়োজনে আজ রবিবার উপজেলায় কেশরহাট বিএম কলেজে বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। বিকেল তিনটায় এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু একই সময়ে একই স্থানে মোহনপুর উপজেলা ছাত্রলীগ একই কর্মসূচি ঘোষণা করে। ফলে দুপুরের পরপরই পুলিশ গিয়ে বিশৃঙ্খলা এড়াতে দুই সংগঠনকেই আলোচনা সভা করতে বাধা দেয়। এতে উত্তেজনা দেখা দিলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার-উল-হালিম সেখানে দুপুর দুইটা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করেন। এরপর মাইকিং করে ১৪৪ ধারার বিষয়টি ঘোষণা করা হয় এবং ওই স্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।   

জানা গেছে, যুবদলের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল রাজশাহী মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলনের। কিন্তু ১৪৪ ধারা জারি করে আলোচনা সভা পণ্ড করায় বিকেলে এর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি। এ সময় তিনি দাবি করেন, যুবদলের আলোচনা সভার জন্য প্রশাসনের কাছে পূর্বানুমতি নিয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু হঠাৎ করেই ছাত্রলীগের আলোচনা সভার নামে যুবদলের আলোচনা সভা পণ্ড করে দেওয়া হয়েছে। 

এদিকে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক কালের কণ্ঠকে জানান, তারা আগে থেকেই সেখানে আলোচনা সভার প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু পরে জানতে পারেন, উপজেলা যুবদলও সেখানে আলোচনা সভা করবে। এ কারণে প্রশাসন কাউকেই আলোচনা সভা করতে দেয়নি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার-উল-আলিম বলেন, ‘দুই সংগঠনের মধ্যে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতেই ওই স্থানে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আছে।’



মন্তব্য