kalerkantho


এমন ছোট্ট প্রতিবাদ, রুখে দিতে পারে বড় অন্যায়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৬:০০



এমন ছোট্ট প্রতিবাদ, রুখে দিতে পারে বড় অন্যায়

প্রতিবাদ ছোট্ট। হয়তো এই প্রতিবাদ অনেকের চোখে পড়বেই না। কিন্তু ছোট্ট একটি প্রতিবাদই বড় উদাহরণ হয়ে প্রতিষ্ঠিত হতে পারে। মানুষ যখন প্রতিবাদ থেকে ক্রমশ দূরে সরে যাচ্ছে, সেই সময় এমন প্রতিবাদী মানুষ কমই দেখা যাচ্ছে। প্রতিবাদ করলেই বুঝি ঝামেলা বাড়ে।

আসলে ঘটনা কী? ঘটনা খুবই ছোট্ট। গুলশান ১ নম্বর ও গুলশান ২ নম্বরের মাঝামাঝি স্থানের ঘটনা। গুলশান ১ নম্বর থেকে ২ নম্বরগামী গাড়ি মাঝামাঝি একটি সিগন্যালে দীর্ঘ সময় ধরে জ্যামে আটকে আছে গাড়ি। এই সুযোগে ফুটপাতের ওপর দিয়ে একের পর মোটরসাইকেল উঠে চলে যেতে লাগলো।

ফুটপাত সাধারণত পথচারীদের সহজ যাতায়াতের জন্য ব্যবহৃত হয়। মোটরসাইকেল চালানোয় অনেক পথচারীর সমস্যা হচ্ছিল। এমনকী দু'একজন আঘাত পেতে পেতেও বেঁচে গেছেন। এমন সময় ভেতরের রাস্তা থেকে এক ব্যক্তি বের হয়ে ফুটপাতে হাঁটতে শুরু করেন।

তিনি ফুটপাতে মোটরসাইকেল দেখেই দুই দুইটা মোটরসাইকেল আটকে দেন। তিনি রীতিমতো জবাবদিহী শুরু করেন, 'কেন তারা ফুটপাতে মোটরসাইকেল উঠিয়েছেন।'  চালকেরা সরি বলে ফুটপাত থেকে নেমে যেতে চাইলেও তিনি তাদের ছাড়ছেন না, প্রশ্নের উত্তর চাইছেন।

শেষ পর্যন্ত দুই চালককে মৌখিকভাবে ফুটপাতে মোটরসাইকেল নিয়ে উঠবে না প্রতিজ্ঞা করে তারপর ওই ব্যক্তি ছেড়ে দেন। ওই ব্যক্তির প্রতিবাদের কারণে আশেপাশে মানুষজন জমে যায় ফলে তারা প্রতিবাদ করতে বাধ্য হয়।

নাম ব্বলতে অনিচ্ছুক ওই ব্যক্তি বলেন, আমাদের পুরো সিস্টেমটাই নষ্ট হয়ে গেছে। তরুণরা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এখন সময় এসব অন্যায়ের বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর। ছোট ছোট প্রতিবাদ একটা সময় বড় অন্যায়কেও থামিয়ে দেবে। আর এ ধরনের অন্যায় মেনে নিলে তা এক্সময় পিঠে চেপে বসবে। 


মন্তব্য