kalerkantho


বিশ্ববিজৎ নিহতের ঘটনা

নালিতাবাড়ী থানার ওসি'র বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

শেরপুর প্রতিনিধি    

১১ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৮:০৩



নালিতাবাড়ী থানার ওসি'র বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

ছবি : কালের কণ্ঠ

শেরপুরে পুলিশ ধরে ছাড়ার পর বিশ্বজিৎ সরকার নামে এক যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় নালিতাবাড়ী থানার ওসি একেএম ফসিহুর রহমান, দুই এসআই আতিয়ার রহমান ও সুমন মিয়াসহ ১২ জনকে আসামি করে আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

ঘটনার প্রায় আড়াই মাস পর আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট-২ নালিতাবাড়ী উপজেলা আদালতে নিহতের ভাই নিত্যানন্দ সরকার সুব্রত বাদী হয়ে এ মামলাটি দায়ের করেন। আদালতের বিচারক উর্ধ্বতন বিচারিক হাকিম মো. হুমায়ুন কবীর মামলাটি আমলে নিয়ে পিবিআই ময়মনসিংহকে (পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন) আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মমতাজ উদ্দিন মুন্না আদালতে নালিতাবাড়ী থানার ওসি, এসআই সহ ১২ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পিবিআই ময়মনসিংহকে ঘটনাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। মামলা দায়েরের সদময় আদালতে বাদীপক্ষের আইনগত সহায়তা করেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন, ময়মনসিংহ বিভাগের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম চুন্নু।  

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১ অক্টোবর রাত ৭টার দিকে পুলিশ নালিতাবাড়ী শহরের কাচারি পাড়া এলাকার কাঠমিস্ত্রী বিশ্বজিৎ সরকারকে (২০) গাজা রাখার অভিযোগে আটকের পর থানায় নিয়ে যায়। পরে ওই রাত ১০টার দিকে তাকে তার দুলাভাইয়ের জিম্মায় থানা হাজত থেকে ছেড়ে দেওয়ার পর রাত ১টার দিকে গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে নালিতাবাড়ী উপজেলা হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

পুলিশের পিটুনীতে হত্যার দাবি করে পরদিন তার লাশ নিয়ে এলাকাবাসী বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। সেসময় পুলিশের নালিতাবাড়ী সার্কেলের অফিস কক্ষে ইটপাটকেলের আঘাতে ভাংচুরের ঘটনাও ঘটে। 

 


মন্তব্য