kalerkantho


আশুলিয়ায় গার্মেন্টকর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগে আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

১৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৭:৪৭



আশুলিয়ায় গার্মেন্টকর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগে আটক ১

প্রতীকী ছবি

আশুলিয়ায় তৈরি পোশাক কারখানার এক নারীকর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগে তার কথিত প্রেমিককে আটক করেছে পুলিশ। ধর্ষিতার শারীরিক পরীক্ষা ও চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। আটক প্রেমিক রাসেল মিয়া (৩২) বগুড়া জেলার সাড়িয়াকান্দি থানার কামালপুর গ্রামের আলম মিয়ার ছেলে। সেও অপর একটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিক। 

ধর্ষিতা গার্মেন্টকর্মী ভাদাইল এলাকায় বাবা-মা ও ছোট এক বোনের সাথে একটি কক্ষে বসবাস করত। সে স্থানীয় একটি গার্মেন্টে হেলপার পদে কাজ করত।

পুলিশ জানায়, গতকাল শুক্রবার রাত ১০টায় নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের জিরানী এলাকায় সজ্ঞাহীন অবস্থায় হেয়ার ক্যাপ কারখানার এক নারী কর্মীকে (১৫) পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা। পরে ঘটনাস্থল থেকে ওই নারী কর্মীকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ওই নারী কর্মীর মা বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। রাসেল মিয়ার সঙ্গে ওই নারী কর্মীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে জানা গেছে।

ধর্ষিতার এক সহকর্মী ও প্রতিবেশীরা জানায়, গাজীপুরের চন্দ্রা এলাকায় একটি তৈরি পোশাক কারখানায় কর্মরত রাসেল মিয়ার সাথে ওই নারী শ্রমিকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে নিজ কর্মস্থলে বেতন উত্তোলনের কথা বলে ওই নারী পোশাক শ্রমিক বাসা থেকে বের হন। এরপর রাত ১০টার দিকে নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের জিরানী এলাকায় সজ্ঞাহীন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। 

থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোমিনুল ইসলাম বলেন, পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে রাতে রাসেলসহ কয়েকজন ওই পোশাক শ্রমিককে জিরানী এলাকার একটি বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে তার কয়েকজন মিলে তাকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

 

 


মন্তব্য