kalerkantho


চাঁদপুরে কিশোরের ছুরিকাঘাতে দাদী ও চাচী গুরুতর আহত

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

২০ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৯:৪৯



চাঁদপুরে কিশোরের ছুরিকাঘাতে দাদী ও চাচী গুরুতর আহত

ছবি : কালের কণ্ঠ

চাঁদপুর শহরে ১৪ বছরের এক কিশোরের ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন তার চাচী ও দাদী। আজ শনিবার ভোর রাতে শহরের নিশি বিল্ডিং এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আহত চাচী আকলিমা বেগম ও দাদী মরনী বেগমকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনায় জড়িত কিশোর জিহাদ গাজীকে সদর মডেল থানা পুলিশ আটক করেছে।  

চাঁদপুর পৌরসভার নারী কাউন্সিলর ফরিদা ইলিয়াস জানান, জিহাদ গাজীর বাবা আব্দুল কাদির গাজী এবং চাচা মোস্তফা গাজী মধ্যপ্রাচ্যে থাকেন। তবে মায়ের সাথে গাজীপুরের টঙ্গিতে বসবাস করতো জিহাদ গাজী (১৪)। গত দুইদিন আগে চাঁদপুর শহরের নিশি বিল্ডিং এলাকায় দাদীর বাড়িতে বেড়াতে আসে সে। শুক্রবার রাতে একই ঘরে দাদী মরনী বেগম (৬০) ও চাচী আকলিমা বেগমের (২৩) পাশের কক্ষে ঘুমায় জিহাদ গাজী। 

শনিবার ভোর রাতে সে দাদী ও চাচীর ওপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা করে। এসময় জিহাদ গাজী এই দুজনের বুকে একাধিক ছুরিকাঘাত করে। আহতদের ডাক চিৎকারে আশপাশের মানুষজন ছুটে আসেন। আহতদের দ্রুত চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি ঘটলে শনিবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

চাঁদপুর সদর মডেল থানার ওসি মো. ওয়ালীউল্যাহ জানান, ভোর রাতের এমন খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলের একটি কক্ষের দরজা ভেঙে জিহাদ গাজীকে আটক করে। ওসি আরো জানান, প্রাথমিকভাবে পুলিশের কাছে মুখ খুলছে না জিহাদ। তবে ধারণা করা হচ্ছে, চুরির উদ্দেশ্যে দাদী ও চাচী যে কক্ষে ঘুমিয়ে ছিল, সেই কক্ষে প্রবেশ করে জিহাদ গাজী। কারণ, তার কাছ থেকে পুলিশ দুটি হেকশো ব্লেড উদ্ধার করেছে। হয়তো চাচীর কক্ষে থাকা আলমিরা ভেঙে স্বণালঙ্কার চুরির চেষ্টা চালায় সে। কিন্তু দেখে ফেলায় দাদী ও চাচীর ওপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় জিহাদ গাজী।   

এই ঘটনায় শনিবার দুপুর পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি। তবে অভিযুক্ত জিহাদ গাজীকে শিশু অপরাধ আইনে মামলা দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি।       


মন্তব্য