kalerkantho


কেরানীগঞ্জে গৃহবধূর মাথার চুল কেটে দেয়ার অভিযোগ

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২১:০২



কেরানীগঞ্জে গৃহবধূর মাথার চুল কেটে দেয়ার অভিযোগ

কেরানীগঞ্জে পরকিয়ার অভিযোগে লাখি আক্তার (২৫) নামে দুই সন্তানের জননীকে আটকে রেখে রাতভর নির্যাতন করা হয়েছে। এরপর মাথার চুল কেটে সকালে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। আজ শনিবার সকালে নির্যাতনের হাত থেকে ছাড়া পাওয়ার পর সারাদিন দুই কন্যা সন্তান নিয়ে এদিক ওদিক ঘোরাফেরা করে শেষে সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী নারী কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় এসে একটি লিখিত অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় নির্যাতনকারী কোহিনুর বেগমকে (৪৫) আটক করেছে পুলিশ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জিনজিরা বন্দ ডাকাপাড়া এলাকার মজিবর নামে এক ব্যক্তিকে লাখি আক্তার চাচা বলে ডাকতেন। ওই সূত্র ধরে মজিবর মাঝে মধ্যে তাদের বাসায় আসা যাওয়া করতেন। এতে মজিবরের স্ত্রী কোহিনুর সন্দেহ করে তার স্বামীর সাথে পরকিয়া সম্পর্ক রয়েছে। 

গতকাল শুক্রবার রাতে কোহিনুর কৌশলে লাখি আক্তারকে তার বাসায় ডেকে নিয়ে আটকে রেখে রাতভর মারধর করে। এসময় কোহিনুরের কথায় লাখি আক্তারের উপর আরো কয়েকজন নির্যাতন চালান। এক পর্যায়ে কোহিনুর কেচি দিয়ে মাথার সব চুল কেটে দেন। 

এ বিষয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার এসআই ওবায়দুর রহমান জানান, ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কোহিনুর বেগমকে আটক করা হয়েছে। স্বামীর সঙ্গে পরকীয়া আছে এমন সন্দেহ থেকেই লাখিকে তিনি নির্যাতন করেছেন বলে স্বীকার করেছেন।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যোবায়ের জানান, এক নারীকে নির্যাতন করে চুল কেটে দেয়ার ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। আরও কয়েকজন তাকে সহায়তা করেছিল বলে জানতে পেরেছি। অভিযুক্ত সবার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। 


মন্তব্য