kalerkantho


অনিমার হত্যাকারী সন্দেহে দুই ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর    

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৪:৫১



অনিমার হত্যাকারী সন্দেহে দুই ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার

ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স অনিমা বিশ্বাসের হত্যাকারী সন্দেহে পুলিশ দুই ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এরা হলেন ফরিদপুর শহরের রঘুনন্দনপুর এলাকার মো. ফারুক শেখের ছেলে মো. শরীফুল  ইসমাইল ওরফে শরীফ (২৮) এবং শহরের গোয়ালচামট মোল্লা বাড়ি সড়কের  মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে হাবিবুর রহমান ওরফে টিটু (২০)।

আজ রবিবার দুপুরে ফরিদপুর কোতোয়ালি মডেল থানায় আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার মো. জামাল পাশা জানান, গত ১৭ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল সোয়া ৭টার দিকে শহরের ঝিলটুলী এলাকার সদর উপজেলা ভূমি অফিসের সামনে অনিমা বিশ্বাস ছিনতাইয়ের শিকার হন।

তিনি রিকশাযোগে তাঁর কর্মস্থল ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যাচ্ছিলেন। ছিনতাইকারীরা একটি মোটরসাইকেলে দ্রুতগতিতে এসে রিকশাযাত্রী অনিমার হাত থেকে তাঁর ভ্যানিটি ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যান। ছিনতাইকারীদের হ্যাঁচকা  টানে অনিমা রিকশা থেকে সড়কের ওপর পড়ে মাথায় গুরুতর আঘাত পান।

গুরুতর আহত অনিমাকে প্রথমে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও পরে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সযোগে ঢাকায় নেওয়া হয়। সেখানে নিউরো সায়েন্স হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা বিভাগে ভর্তি করে তাঁকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পাঁচ দিন পর চিকিৎসকরা অনিমার লাইফ সাপোর্ট খুলে নিয়ে তাঁকে  মৃত ঘোষণা করেন।

অভিযোগ না পেলেও ঘটনার পর থেকে পুলিশ ছিনতাইকারীদের শনাক্ত করে তাদের আইনের আওতায় আনার চোর প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখে। তিনি বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ও  মোবাইল ফোন ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে জেলার আলফাডাঙ্গা উপজেলা থেকে শরীফুলকে গত শুক্রবার রাতে আটক করে। তার দেওয়া তথ্যমতে পুলিশ গতকাল শনিবার সকালে নিজ বাড়ি থেকে টিটুকে আটক করে। তাদের কাছ থেকে ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ও হেলমেট এবং অনিমার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন সেট উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যাপারে নিহতের ভাই বিধান ভৌমিক বাদী হয়ে গতকাল শনিবার অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের আসামি করে কোতোয়ালি  থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ সুপার আরো জানান, ওই মামলায় শরীফুল ও টিটুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা দুজনই ঘটনায় জড়িত বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। তাদের আরো জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে আদালতে সোপর্দ করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

প্রেসব্রিফিং-এ অন্যদের মধ্যে ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ওসি এ এফ এম নাসিম ও পরিদর্শক (অপারেশন) বিপুল চন্দ্র দে-সহ পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।  


মন্তব্য