kalerkantho


নোয়াখালীতে গণহিস্টোরিয়ায় আক্রান্ত অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী, হাসপাতালে ভর্তি ১০

নিজস্ব প্রতিবেদক, নোয়াখালী   

২৪ এপ্রিল, ২০১৮ ২২:২২



নোয়াখালীতে গণহিস্টোরিয়ায় আক্রান্ত অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী, হাসপাতালে ভর্তি ১০

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গণহিষ্টিরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ্য হয়েছে অর্ধশতাধিক ছাত্রছাত্রী। তাদের মধ্যে ১০ জনকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদেরকে মেডিক্যাল টিম স্থাপন করে চিকিৎসা দেয়। আজ মঙ্গলবার উপজেলার হাসানহাট উচ্চ বিদ্যালয় ও হাসানহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ক্লাস চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর বিদ্যালয় দুটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়। 

এর আগে গত ১১ এপ্রিল অনুরুপভাবে অর্ধশতাধিক ছাত্রী গণহিষ্টিরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন। ১৩ দিনের ব্যবধানে আবারও একই রোগে আক্রান্ত হয়ে ছাত্র-ছাত্রী অসুস্থত হওয়ায় অভিবভাবকদের মধ্যে বিভিন্ন প্রশ্নের উদ্ভব হয়েছে।

এ বিষয়ে হাসানহাট উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মিজানুর রহমান জানান, বেলা ১২টার দিকে হাসানহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দুইজন ছাত্রী শ্রেণীকক্ষে সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়ে। এরপর দুই স্কুলের আরো বেশ কিছু শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাৎক্ষণিক বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকদের নেতৃত্বে একটি মেডিকেল টিম ছাত্রছাত্রীদেরকে চিকিৎসা দেয়। তাদের মধ্যে ১০ জনকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্কুল দুটি বন্ধ ঘোষণা করে শিক্ষার্থীদেরকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হলে অনেকে সেখানেও অসুস্থ হয়ে পড়ে।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছাত্রীরা জানায়, হঠাৎ একটি বাতাশ আশার পর তারা অসুস্থ হয়ে পড়ে। তবে অপর এক ছাত্রী জানায়, স্কুলের পুকুরে কি এক অস্বাভাবিক ছবি দেখার পর সে অসুস্থ হয়ে পড়ে।

এ ব্যাপারে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম জানান, অসুস্থ হয়ে পড়া ছাত্রছাত্রীদেরকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তারা 
গণহিস্টোরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর পেয়ে সিভিল সার্জন ডাক্তার বিধান চন্দ্র সেনগুপ্ত ও জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাক্তার খলিল উল্লাহ শিক্ষার্থীদেরকে দেখতে যান। 

নোয়াখালীর সিভিল সার্জন ডাক্তার বিধান চন্দ্র সেন গুপ্ত জানান, আক্রান্ত আকষ্মিক ভয় পাবার পর একজনের দেখাদেখি অপরজন অসুস্থ হয়ে পড়ে, এটি ম্যাস হিষ্টিরিয়া। যেহেতু দুইবার এ অবস্থা ঘটেছে তাই এ স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের মনের ভয় তাড়ানোর জন্য তাদের মনোস্তাত্বিতক চিকিৎসক দেখানো প্রয়োজন। এটি কোনো ঘটনা নয়।

 


মন্তব্য