kalerkantho


শরীয়তপুরের গোসাইরহাটে গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টা

শরীয়তপুর প্রতিনিধি   

২৫ এপ্রিল, ২০১৮ ২২:১৯



শরীয়তপুরের গোসাইরহাটে গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টা

শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার ভোগকাঠি গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বিউটি আক্তার (৪৫) নামের এক গৃহবধূকে জবাই করে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে পাওয়া গেছে। এ সময় আরো দুইজনকে কুপিয়ে আহত করা হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় বিউটি বেগমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবারের এ ঘটনায় বিউটি আক্তারের ছেলে রাকিব বেপারী বাদী হয়ে গোসাইরহাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ এখনো কাউকে আটক করতে পারেনি।

আহত বিউটি আক্তার গোসাইরহাট ইউনিয়নের ভোগকাঠি গ্রামের হোসেন বেপারির স্ত্রী। অপর আহতরা হলেন বিউটি আক্তারের ছেলে রাকিব বেপারি (২৪) ও মেয়ে প্রমিতা আক্তার(২০)।

গোসাইরহাট থানা পুলিশ ও আহতের স্বজনরা জানায়, উপজেলার গোসাইরহাট ইউনিয়নের ভোগকাঠি গ্রামের হোসেন বেপারির সাথে প্রতিপক্ষ মুজাফ্ফর বেপারির দীর্ঘদিন যাবৎ জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। গতকাল মঙ্গলবার সকালে গাছ থেকে নারিকেল পাড়া নিয়ে হোসেন বেপারির স্ত্রী বিউটি বেগম(৪২) ও ছেলে রাকিব বেপারির (২৪) সাথে প্রতিপক্ষ মৃত আলি বেপারির ছেলে মুজাফ্ফর বেপারির (৪৫), শাহজালাল বেপারি(৪০) ও তার স্ত্রী জাহানারা বেগমের(৩৫) কথা কাটাকাটি হয়। এ নিয়ে বিকেল ৩টার দিকে আবারো তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর এক পর্যায়ে মুজাফফর বেপরী ও শাহজালাল বেপারী বিউটি বেগমের চুলের মুঠি ধরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার গলায় পোচ দেয়(তার গলা কাটর চেষ্টা করে)। চিৎকার শুনে বিউটির ছেলে রাকিব ও মেয়ে প্রতিমা আক্তার ছুটে গেলে তাদেরকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। পরে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে রক্তাত অবস্থায় বিউটিকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। বিউটির গলায় ও মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে বিউটির অবস্থা আশঙ্কাজনক হয়ে পড়ায় আজ বুধবার সকালে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় বিউটির ছেলে রাকিব বেপারী (২৪) বাদি হয়ে গতকাল রাতেই গোসাইরহাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে কথা বলতে প্রতিপক্ষ মুজাফফর বেপারীদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে কাউকে পাওয়া যায়নি। ঘটনার পর থেকে তারা সবাই পলাতক রয়েছে বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী।

এ ব্যাপারে গোসাইরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদি মাসুদ বলেন, এই ঘটনায় আহত বিউটির ছেলে বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে।


মন্তব্য