kalerkantho


তানোরে স্ত্রীকে হত্যার করে স্বামীর আত্মহত্যার চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ও তানোর প্রতিনিধি   

২৩ মে, ২০১৮ ০১:০৯



তানোরে স্ত্রীকে হত্যার করে স্বামীর আত্মহত্যার চেষ্টা

রাজশাহীর তানোরে স্ত্রীকে মারপিট করে হত্যার পর কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে স্বামী। গতকাল মঙ্গলবার সকালে তানোর উপজেলার চান্দুড়িয়া ইউনিয়নের জুড়ানপুর গ্রামে ঘটানটি ঘটে। পুলিশ নিহত সুম্মাতুন বেগমের (৩২) লাশ উদ্ধার করে মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। নিহতের স্বামী নিশার উদ্দীনকে (৩৮) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি রাজশাহী মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে পুলিশ পাহারায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

নিহত সুম্মাতুনের বাবা শুকুর আলী বাদী হয়ে মেয়ে জামাই নিশার উদ্দীনসহ তিনজনকে আসামি করে তানোর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। 

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রাতৈল গ্রামের শুকুর আলীর মেয়ে সুম্মাতুন বেগমের সঙ্গে একই ইউনিয়নের জুড়ানপুর গ্রামে সৈয়দ আলীর ছেলে নিশার উদ্দীনের (৩৮) বিয়ে হয় ১৭ বছর আগে। তাদের সংসারে দুটি সন্তান রয়েছে। 

নিহতের পিতা শুকুর আলী বলেন, ‘আমার মেয়ের সংসারে এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবিসহ অকারণে জামাই আমার মেয়েকে নির্যাতন করে আসছিল। আমি নিজের জমি বন্দক রেখে কিছুদিন আগেও ৩০ হাজার টাকা জামাইকে দিয়েছি। তার পরেও আমার মেয়েকে জামাই নিসারসহ তার পরিবারের লোকজন নির্যাতন করে আসছিল। শেষে নির্যাতনের পর হত্যাই করা হলো আমার মেয়েকে। আমি এই হত্যার বিচার চাই।’  

তানোর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল ইসলাম বলেন, বিষয়টি সুম্মাতুন বেগমের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। স্বামী নিশারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।


মন্তব্য