kalerkantho


কেশবপুরে খ্রিষ্টভক্তদের উপাসনালয় নির্মাণ অব্যাহত রাখার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি   

২৭ মে, ২০১৮ ১৪:৫৫



কেশবপুরে খ্রিষ্টভক্তদের উপাসনালয় নির্মাণ অব্যাহত রাখার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

কেশবপুরে খ্রিষ্টভক্তদের উপাসনালয় ও জনহিতকর কার্যক্রম অব্যাহত রাখার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। খ্রিষ্টিয়ান আউটরিচ সেন্টার ফাউন্ডেশনের আয়োজনে আজ রবিবার সকালে কেশবপুর প্রেস ক্লাব হলরুমে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। 

জনাকীর্ণ এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সংগঠনটির কেশবপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক চিত্ত রঞ্জন সরকার জানান, বিগত ৪০ বছর আগে কেশবপুর শহরের অনন্ত সাহা স্মৃতি সড়কের পাশে নিজস্ব ৮৪ শতক জমির ওপর খ্রিষ্টিয়ান আউটরিচ সেন্টার ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ এর কেশবপুর শাখা স্থাপিত হয়। সেই থেকে ওই মিশনের বিশ্বাসীগণ ধর্ম পালন, দুস্থ অনাথ শিশু ও অসহায় মানুষের আত্মকর্ম সংস্থানমূলক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছে। বিগত ১৫ থেকে ২০ বছর ধরে সাহাপাড়ায় জলাবদ্ধতা শুরু হলে ওই মিশনসহ ভবনটি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। দীর্ঘদিনেও ভবনটি পুন:সংস্কার না হওয়ায় বসবাসের অযোগ্য ও পরিত্যাক্ত ঘোষণা করে ভেঙে ফেলা হয়। ফলে মিশনের কার্যক্রম ও অসহায় শিশুদের এতিমখানা সাময়িকভাবে যশোর শহরে স্থানান্তর করা হয়েছে। এমতাবস্থায় খ্রিষ্টভক্তদের উপাশনালয় ও জনহিতকর কার্যক্রম অব্যাহত রাখার স্বার্থে মিশনটির ভবন করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। এ লক্ষ্যে মিশন কম্পাউন্ডে বালি ও মাটি দিয়ে ভরাটের উদ্যোগ নেওয়া হয়। কিন্তু পৌর কর্তৃপক্ষ নতুন করা সড়কে ভারি যানবাহনে বালি ও মাটি বহনের জন্য ব্যবহারের অনুমতি না দিলে মিশন কর্তৃপক্ষ বাধ্য হয়ে খুলনা থেকে বালু ক্রয় করে পার্শ্ববর্তী খোঁজাখালি খালে ফেলে ওই বালু পাইপ লাইনের মাধ্যমে মিশন কম্পাউন্ড ভরাট কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। এ সময় স্থানীয় পত্র-পত্রিকায় ভূ-গর্ভ থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে বলে সংবাদ প্রকাশিত হলে প্রশাসন খোঁজাখালি খালের ওই স্থান থেকে পাইপ লাইনের মাধ্যমে বালু ও মাটি মিশন কম্পাউন্ডে উঠানো বন্ধ করে দেন। সেই থেকে ওই মিশনের ভবন সংস্কার কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

তিনি আরো জানান, প্রকৃত পক্ষে খোঁজাখালি খালের ভূ-গর্ভস্থ থেকে কোনো বালি বা মাটি উত্তোলন করা হচ্ছিল না। শুধুমাত্র আমাদের এনে রাখা বালু পাইপ লাইন দিয়ে মিশন কম্পাউন্ড ভরাট করা হচ্ছিল। এমতাবস্থায় ওই মিশন কর্তৃপক্ষ সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ধর্মীয় ও জনকল্যাণমূলক কাজের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন খ্রিষ্টিয়ান আউটরিচ সেন্টার ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ এর কেশবপুর শাখার ভাইস চেয়ারম্যান সুভাষ সরকার, সদস্য যিশাও মন্ডল, রুবেন সরকার, যোহন সিংহ ও শংকর সরকার প্রমুখ। 


মন্তব্য