kalerkantho


কুতুপালংয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে মালয়েশিয়া প্রতিরক্ষামন্ত্রী

নিরাপদ প্রত্যাবাসনই রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান

নিজস্ব প্রদিবেদক, কক্সবাজার   

১২ জুলাই, ২০১৮ ২৩:৩২



নিরাপদ প্রত্যাবাসনই রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান

মালয়েশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী হাজী মোহাম্মদ বিন সাবু বলেছেন, বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া মিয়ানমারের নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের মাধ্যমে প্রত্যাবাসন করাই হচ্ছে রোহিঙ্গা সমস্যার  অন্যতম সমাধান। মালয়েশিয়া রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশের পাশে রয়েছে। বাংলাদেশের সঙ্গে রয়েছে মালয়েশিয়ার দীর্ঘদিনের সৌহার্দ্যপূর্ণ ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক।

মালয়েশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মতো একটি জনবহুল দেশ বিশাল রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে  মানবতার দৃষ্টান্ত রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এমন ঘটনা বিশ্বে বিরল বলেও তিনি মন্তব্য করেন। তিনি এ জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও জনগণের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

আজ বৃস্পতিবার বিকেলে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা আশ্রয় শিবির পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্রিফিংকালে মালয়েশিয়া প্রতিরক্ষামন্ত্রী হাজী মোহাম্মদ বিন সাবু আরো বলেন, ‘এত বিপুলসংখ্যক রোহিঙ্গাদের খাদ্য, বস্ত্র, চিকিৎসা, আশ্রয়সহ নানাবিধ মানবিক সেবাসহ আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। বিশ্বের নিপীড়িত উদ্বাস্তু জনগোষ্ঠীর দুর্দিনে যখন অনেকে মুখ ঘুরিয়ে নিয়েছিল তখন বাংলাদেশ নানা সীমাবদ্ধতার মাঝেও মানবতার দরজা খুলে দিয়ে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর জানমাল ও ইজ্জত রক্ষা করেছে।’

তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের জন্য জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক বিশ্ব কাজ করছে। রোহিঙ্গারা এদেশে আশ্রয় নেওয়ার শুরু থেকে মালয়েশিয়া সরকার সহযোগিতা দিয়ে আসছে। এ ব্যাপারে মালয়েশিয়া সরকার বাংলাদেশকে আরো সহযোগিতা করে যাবে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকালে কুতুপালং শিবিরের স্থাপনাগুলো ঘুরে দেখেন এবং রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলে তাদের সুখ দুঃখের কথা জানতে চান। পরে তিনি উখিয়ার টিএন্ডটি এলাকায় মালয়েশিয়া পরিচালিত ফিল্ড হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা যাতে চাহিদামত স্বাস্থ্যসেবা পায় সেজন্য প্রয়োজনে এ হাসপাতালকে আরো সম্প্রসারণ করা হবে। মালয়েশিয়া মন্ত্রীর সঙ্গে রয়েছেন ১৮ সদস্যর মালয়েশিয়া প্রতিনিধিদল। 

এ সময় তাদের সঙ্গে ছিলেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. সরওয়ার কামাল, অতিরিক্ত শরনার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার শামশুদ্দৌহা, উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জাামান চৌধুরীসহ বিমান ও সেনাবাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।



মন্তব্য