kalerkantho


১১ নভেম্বর সোহাগ পারভেজের একক চিত্রপ্রদর্শনী শুরু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩১ অক্টোবর, ২০১৭ ২১:১৭



১১ নভেম্বর সোহাগ পারভেজের একক চিত্রপ্রদর্শনী শুরু

বাংলাদেশে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের শেষ নেই। পূর্ব-পশ্চিম থেকে উত্তর-দক্ষিণ সবখানেই নানা বৈচিত্র।

পাহাড়, সমুদ্র, সমতল, নদ-নদী, হাওর-বাওর কী নেই এখানে। ছোটবেলা থেকে এ সব দৃশ্য খেলা করেছে নিজের ভেতর। বড় হয়ে এসব দৃশ্যই সোহাগ পারভেজের তুলিতে পেয়েছে অনন্য রূপ।
১১টি ড্রইং, ৮টি পেন স্কেচ, ১৮টি জলরং, ৬টি এক্রেলিক আর ২টি তেল রংয়ে আঁকা ছবি নিয়ে সোহাগ পারভেজের এবারের প্রদর্শনী। শিরোনাম ‘রূপ বৈচিত্র্যে বাংলাদেশ’।
ধানমণ্ডির গ্যালারি টুয়েন্টি ওয়ান-এ প্রদর্শনীটি শুরু হচ্ছে ১১ নভেম্বর শনিবার বিকেল সাড়ে চারটা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত। প্রতিদিন চলবে সকাল ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত।
চিত্রশিল্পী মনিরুল ইসলাম, কথা সাহিত্যিক সেলিনা হোসেন এবং অধ্যাপক মুনতাসির মামুনসহ কমপক্ষে ১০ জন প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী প্রদর্শনীটি উদ্বোধন করবেন। ১১ নভেম্বর থেকে চলবে ২৬ নভেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা থেকে পাস করার পর শিল্পী সোহাগ পারভেজের এটি ৭ম একক প্রদর্শনী। আর গ্রুপ প্রদর্শনী করেছেন ৬৭টি। নিজের দেশ ছাড়াও ভারত, আমেরিকা, ফিলিপাইন, জাপান, চীনসহ আর্ট ক্যাম্প করেছেন প্রায় ৪৫টি দেশে।

বইয়ের প্রচ্ছদ ও অলংকরণেও দক্ষতা আর নান্দনিকতার ছাপ রয়েছে সোহাগ পারভেজের। করেছেন প্রায় ২ হাজরের অধিক বইয়ের কাজ।

সোহাগ পারভেজ জানান, কিশোর বয়সে পাল তোলা নৌকা, মাঠে গরু-লাঙল দিয়ে চাষ, সবুজ-পাকা ধানক্ষেত আর দেখেছেন ঋতুর বৈচিত্রময় পরির্তন। শহরে জন্মগ্রহণ করলেও গ্রামে গ্রামে হেটে বেড়িয়েছেন ড্রইং খাতা নিয়ে। এঁকেছেন কখনও সমতলভূমি, নদী-হওর-বিল। পাহাড়-ঝর্ণা এবং উপজাতি জনগোষ্ঠীদের জীবনচিত্রও ধরে রেখেছেন রঙ-তলিতে।

তিনি জানান, সব সময়ই তিনি সাধারণ মানুষের হাসি-কান্না আর প্রকৃতির ছবিই আঁকতে ভালোবাসেন। প্রকৃতির সাথে যে সাধারণ মানুষের নিবিড় সম্পর্ক তা তিনি উপলব্ধি করেন মন দিয়ে। ধরে রাখতে চেষ্টা করেন সেব দৃশ্য রঙ-তুলির কোমল আচড়ে। দেশের প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ চিত্রশিল্পী সোহাগ পারভেজ জন্ম এবং শৈশব কেটেছে কুষ্টিয়া শহরে।


মন্তব্য