kalerkantho


টরন্টোয় হামলাকারী নারীবিদ্বেষী

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৬ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



কানাডার টরন্টোয় ১০ জনকে গাড়িচাপা দিয়ে হত্যাকারী এলেক মিনাসিয়ানের এ কর্মকাণ্ডের কারণ খুঁজতে গিয়ে পুলিশ তার নারীবিরোধী মনোভাবের প্রমাণ পেয়েছে। তবে সেটাই হামলার কারণ কি না, তা পুলিশ নিশ্চিত করেনি। মিনাসিয়ানের বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার ১০টি হত্যা ও ১৩টি হত্যাচেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে।

তদন্তে কানাডার পুলিশ দেখেছে, গত সোমবার টরন্টোর ইয়াঙ্গে স্ট্রিটে পথচারীদের ওপর গাড়ি চালিয়ে দেওয়ার আগে মিনাসিয়ান ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছে। তাতে আরেক নারীবিরোধী ইলিয়ট রজারের প্রশংসা করেছে মিনাসিয়ান। রজার ২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় গুলি করে ছয়জনকে হত্যা করে এবং এরপর আত্মহত্যা করে। তখন রজারের বয়স ছিল ২২ বছর।

রজারের নাম উল্লেখ করে মিনাসিয়ান ফেসবুক পোস্টে লেখে, ‘ইনসেল বিদ্রোহ ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে! সব আকর্ষণীয় পুরুষ ও নারীকে আমরা শেষ করে দেব। সব প্রশংসা মহান ভদ্রলোক ইলিয়ট রজারের উদ্দেশে।’ যৌন সম্পর্ক স্থাপন করতে চেয়ে নারীদের কাছ থেকে প্রত্যাখ্যাত পুরুষদের একটি গোষ্ঠী নিজেদের ‘ইনসেল’ অ্যাখ্যা দেয়।

এই পোস্ট দেওয়ার পর টরন্টোর ফুটপাতে গাড়িচাপা দিয়ে ১০ জনকে হত্যা করে মিনাসিয়ান। নিহতদের বেশির ভাগই নারী এবং তাঁদের বয়স ২০ থেকে ৮০ বছরের কোঠার মধ্যে। তবে টরন্টো গোয়েন্দা পুলিশের সার্জেন্ট গ্রাহাম গিবসন জানান, পুরুষদের এড়িয়ে মিনাসিয়ান শুধু নারীদের ওপর হামলা চালিয়েছে, এমন প্রমাণ এখনো পরিষ্কার নয়। তার এ হামলার সম্ভাব্য সব কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সূত্র : সিএনএন, বিবিসি।


মন্তব্য