kalerkantho


প্রথমবারের মতো রিং পরানো কার্যক্রম আমেরিকায় সম্প্রচার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ জুন, ২০১৮ ২০:৪৪



প্রথমবারের মতো রিং পরানো কার্যক্রম আমেরিকায় সম্প্রচার

জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালের (এনআইসিভিডি) ক্যাথল্যাবে জটিল এক রোগীর দেহে রিং পরানো (স্ট্যান্টিং) হচ্ছে আর ক্যাথল্যাবে চিকিৎসকদের এই কার্যক্রম স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সরাসরি দেখছেন আমেরিকার অরল্যান্ডোতে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক হৃদরোগ সম্মেলনে অংশ নেয়া বিভিন্ন দেশের প্রায় পাঁচ হাজার চিকিৎসক। 

বুধবার এই লাইভ কেসটি পরিচালনা করেন দেশের বিশিষ্ট ইন্টারভেনশন কার্ডিওলজিস্ট, এনআইসিভিডির পরিচালক অধ্যাপক ডা. আফজালুর রহমান। তাঁর টিমে ছিলেন ডা. মহসিন, ডা. তারেক, ডা. ফারহানা, ডা. আরিফ প্রমুখ। এই লাইভ কেস সম্প্রচারে আইভাস, এফএফআর এর মতো অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

ক্রিটিক্যাল করোনারি আর্টারি ডিজিজ বা জটিল হৃদরোগে আক্রান্ত ৫২ বছর বয়সী গোলাম কিবরিয়ার হৃদযন্ত্রে ছিলো অনেকগুলো ব্লক যার মধ্যে তিনটি ছিলো মেইন আর্টারিতে। এ পরিস্থিতিতে চিকিৎসকগণ বাইপাস সার্জারি করাতেও রাজী হননি। অবশেষে অত্যন্ত জটিল কেসটি সফলতার সঙ্গে সম্পন্ন করা হলো। সম্মেলনে আগত চিকিৎসকরা বাংলাদেশি চিকিৎসকদের ব্যাপক প্রশংসা করেন এবং ভবিষ্যতে এই ধরনের জটিল হৃদরোগীর চিকিৎসা সরাসরি সমপ্রচারের আহবান জানান।

অধ্যাপক ডা. আফজালুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, কিছুদিন পূর্বেও এই ধরনের জটিল রক্তনালীর একমাত্র চিকিৎসা ছিলো ওপেন হার্ট সার্জারি। এখন আমরা উন্নত প্রযুক্তির সাহায্যে স্ট্যান্টিং করাতে বা রিং বসাতে সক্ষম হচ্ছি। জটিল হৃদরোগীর চিকিৎসায় বাংলাদেশ এখন অনেকদূর এগিয়েছে। তিনি জানান, ওই রোগী এখন বেশ ভালো আছে। দুই একদিনের মধ্যেই তিনি রিলিজ নিয়ে বাসায় যাবেন।

গত ১৭ জুন থেকে অনুষ্ঠিত হওয়া কমপ্লেক্স কার্ডিওভাসকুলার ক্যাথেটার থেরাপিউটিক্সে (সি থ্রি কনফারেন্স) বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রায় ৫ হাজার চিকিৎসক অংশ নেন। সম্মেলনের শেষ দিনে লাইভ কেসের জন্য বেছে নেয়া হয়েছিলো বাংলাদেশের চিকিত্সক টিমের এই কার্যক্রম।



মন্তব্য