kalerkantho


শ্রাবন্তীর দ্বিতীয় সংসারও ভেঙে গেল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ অক্টোবর, ২০১৭ ২০:২০



শ্রাবন্তীর দ্বিতীয় সংসারও ভেঙে গেল

ভেঙে গেছে শ্রাবন্তীর দ্বিতীয় সংসার। কলকাতার বাংলা গণমাধ্যম এই সময়কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা স্বীকার করেছেন শ্রাবন্তী নিজেই।

শ্রাবন্তী বলেন, ‘দু’জনে মিলেই সিদ্ধান্ত নিয়েছি বিচ্ছেদের। বনিবনা না হলে একসঙ্গে মিথ্যা সুখে থাকার কী লাভ। আমার কোনো অভিযোগ নেই আমার প্রাক্তনের বিরুদ্ধে। আমি চাই, আমার সঙ্গে না হোক , কিন্তু সে যেন ভালো থাকে। ’

শ্রাবন্তী সম্পর্কে তার ঘনিষ্ঠদের অনুযোগ, তিনি কোনও সম্পর্কে জড়ালে নিজের দিকটা একেবারেই দেখেন না। তারা মনে করেন, যে কোনও সম্পর্কে শ্রাবন্তী নিজেকে বড় বেশি উজাড় করে দেন। পরিচালক রাজীবের সঙ্গে প্রথম বিয়ের পর পাঁচ বছর আর সিনেমা করেননি তিনি। কৃষাণের সঙ্গে বিয়ের পর কীভাবে তাকে নিয়ে ছবি বানানো যায় সে জন্য প্রচুর খেটেছেন তিনি।   নিজের স্টার স্ট্যাটাস অগ্রাহ্য করে বারবার চেষ্টা করেছেন সুপার মডেল স্বামীকে কীভাবে লঞ্চ করানো যায় বাংলা সিনেমায়।

গত বছর জুলাই মাসে কলকাতার পাঁচতারা হোটেলে যখন তার আর কৃষাণের  বিয়ে হয়, সেই অনুষ্ঠানেরও সব আর্থিক দায়িত্ব নিয়েছিলেন শ্রাবন্তী নিজে। গত বছর বিয়ে রেজিস্ট্রি হলেও এবছর ঘটা করে কোনও পাঁচতারা হোটেলে অফিশিয়াল রিসেপশন করার কথা ছিল তাদের।

জানা গেছে, গত কিছুদিন থেকে তারা আলাদা থাকতে শুরু করেছেন। শ্রাবন্তী থাকছেন তার বাবা মা ও ছেলের সঙ্গে। শ্রাবন্তী নাকি কিছু ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবদের কাছে দুঃখও করেছেন, বারবার সম্পর্ক সংক্রান্ত এই দুর্ভোগে পড়া নিয়ে। তবে বিচ্ছেদের পথে হাঁটার বিষয়টি মাস দুয়েক আগে অস্বীকার করেছিলেন কৃষাণ। তিনি বলেন, দেখুন কিছু সমস্যা হয়েছিল। আমরা ঠিক করে নিয়েছি কথা বলে। কিন্তু দু'মাস পরে সে কথার আর কোনো মূল্য রইলো না। শ্রাবন্তীই নিশ্চিত করলেন সংসার ভেঙে যাওয়ার কথা।

শ্রাবন্তী বললেন, ‘ডিপ্রেসড হয়ে নিজের ক্ষতি করতে পারব না। কারণ আমার ছেলে, বাবা-মা সবসময় আমায় আগলে রাখে। মাঝে মাঝে ভাবি এত ভালোবেসেও আমি ভালোবাসা পেলাম না। তারপর ভাবি বাইরের লোক যাই বলুক, আমি তো জানি কারও সঙ্গে কেন সংসার করতে পারিনি। বাইরের লোক কী বলল, তা নিয়ে আর ভাবি না। তারা কেউ আমার সন্তানকে বড় করবে না। একটাই জীবন। সৎ পথে কাজ করলে ভগবান পাশে থাকবেনই। ’

অতি সম্প্রতি মুক্তি পেতে যাচ্ছে শ্রাবন্তীর নতুন ছবি ‘জিও পাগলা’। রবি কিনাগির পরিচালনায় ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন সোহম, হিরন, পায়েল সরকার, ঋত্বিকা সেন, বনি, কৌশানী। প্রায় এক বছর পর রুপালি পর্দায় ফিরছেন কলকাতার তুমুল জনপ্রিয় এই নায়িকা। মজার ব্যাপার হলো, এ ছবিতে শ্রাবন্তীর বিপরীতে আছেন তার কিশোরবেলার প্রিয় নায়ক যিশু সেনগুপ্ত। দুজনের রসায়নটা নাকি বেশ দারুণ জমেছে অফ এবং অন- দুই স্ক্রিনেই। কানাঘুষাও হচ্ছে টালিগঞ্জের সব্খানে, প্রেমে পড়েছেন এই দুই তারকা।


মন্তব্য