kalerkantho


দীপিকা বলেছিলেন, পদ্মাবতী ছবির নাম বদলে দিলে কাজই করব না

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ২১:৩১



দীপিকা বলেছিলেন, পদ্মাবতী ছবির নাম বদলে দিলে কাজই করব না

সঞ্জয় লীলা বনশালির পদ্মাবতী। নাম বদলে যা এখন পদ্মাবত। সিবিএফসি-র ছাড়পত্র নিয়ে ক’দিনের মধ্যেই মুক্তি পেতে চলেছে ছবিটি। এই খবর শোনার পর দর্শকদের অপেক্ষার অবসান হয়েছে ঠিকই। কিন্তু, নাম বদলে মুক্তির বিষয়ে কী মত ছবির কলাকুশলীদের? এককথায় বলতে গেলে ছবির সঙ্গে যুক্ত সকলেই অখুশি। বিশেষত, নামভূমিকায় অভিনয় করা দীপিকার কাছে বিষয়টি খুবই বেদনাদায়ক।

বনশালি ও দীপিকার কাছে পদ্মাবতী ছিল ড্রিম প্রোজেক্ট। দু’জনেই ছবিটি বানানোর সময় নিজেদের উজার করে দিয়েছিলেন। কিন্তু, তাঁরা দুঃস্বপ্নেও কল্পনা করেননি যে, ছবিটি নিয়ে এত সমস্যায় পড়তে হবে। এমনকী, বদলে ফেলতে হবে ছবির নামও।

এজন্য দীপিকা যে ভীষণভাবে আহত হয়েছেন তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কারণ, গতবছর একটি সাক্ষাৎকারে দীপিকা জানিয়েছিলেন, ছবির নাম পরিবর্তন হলে, এই ছবিতে তিনি কাজই করতেন না। সঞ্জয় যখন ছবির কাজ শুরু করেছিলেন, তখন বি-টাউনে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছিল, ছবির নাম মহিলাকেন্দ্রিক হওয়ায় অনেক প্রথম সারির অভিনেতা নাকি এই ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। আর দীপিকার কাছে প্রস্তাব যাওয়ার পর তাঁর পরিস্কার কথা ছিল, ছবির নাম পরিবর্তন হলে তিনি কাজ করবেন না।

অদৃষ্টের পরিহাস বোধ হয় একেই বলে। দুই শিল্পী অক্লান্ত পরিশ্রম করে নিজেদের মতো করে একটি গল্প সকলের সামনে তুলে ধরেতে চেয়েছিলেন। বলা যায়, তাঁরা অনেকটা সফলও হয়েছিলেন। কিন্তু, মুক্তির আগে হঠাৎই পরিস্থিতি অন্যদিকে মোড় নিল। আর পরিস্থিতির চাপে বদলে ফেলতে হলো ছবির নামও।  

আজ অনেকেই ছবির মুখ্য চরিত্রে কোনও নারীর অভিনয় দক্ষতাকে স্বীকার করেছেন। অভিনেত্রীরা নিজেদের অভিনয়ের জোরে এটি সম্ভব করে তুলেছেন। শুধু তাই নয়, মহিলাদের ক্ষমতাকে পরদায় ফুটিয়ে তোলা সম্ভব এমন আরও অনেক ছবি করতে তাঁরা আগ্রহী।

আর, পদ্মাবতীর মতো ছবির নাম পরিবর্তনের ঘটনা শুধু কলাকুশলীদেরই নয়, মন ভাঙে অসংখ্য সিনেমাপ্রেমীরও।


মন্তব্য