kalerkantho


একটি চুক্তি ভঙ্গের নোটিশ

মো. ঘাবিব

৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বরাবর

ছাদেক আলী

মিরপুর, ঢাকা

 

বিষয় : নিম্নবর্ণিত শর্তাদি ভঙ্গের পরিপ্রেক্ষিতে আপনার সঙ্গে সম্পাদিত দীর্ঘমেয়াদি প্রেমচুক্তি বাতিল প্রসঙ্গে।

 

জনাব, বিনীত নিবেদন এই যে, গত জুন মাসের ৯ তারিখ থেকে আপনার সঙ্গে আমি প্রেম করে আসছি। ছয় মাস পর দেখা যাচ্ছে, আপনার সঙ্গে সম্পাদিত প্রেমচুক্তির কতিপয় শর্ত ভঙ্গের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাগুলো নিম্নে বর্ণনা করা হলো—

 

শর্ত ভঙ্গ ১ : গিফট প্রদানে কঞ্জুসি

আধুনিক প্রেমের মূল ভিত্তি হচ্ছে গিফট। দামি দামি গিফট প্রেমকে দৃঢ় করে। অথচ এমন গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়ে আপনি চরম কঞ্জুসি প্রদর্শন করেছেন। আধুনিক প্রেমিকরা যেখানে তাঁর প্রেমিকাকে ডায়মন্ড রিং, গর্জিয়াস ড্রেস কিংবা ন্যূনতম ক্ষেত্রে দামি শোপিস উপহার দেন, সেখানে আমার গত জন্মদিনে আপনি এক হালি লেবু র্যাপিং করে উপস্থিত হন। আমি তো প্যাকেট দেখে ভেবেছিনাম কী না কী! পরে বান্ধবীদের নিয়ে সেটি খুলে দেখি, লেবু। স্বাদটাও যদি ভালো হতো, তাহলেও কথা ছিল। ডাহা টক। আপনার লেবুর জন্য বান্ধবীদের সামনে আমি লজ্জিত হই। আপনার অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে সেই থেকে বান্ধবীরা আমাকে ‘লেবু’ নামে ডাকে। কী লজ্জার কথা...ছি!

 

শর্ত ভঙ্গ ২ : খানাদানার ব্যাপারে অবহেলা

‘খানাদানা’ আধুনিক প্রেমের মানোন্নয়নে অনুঘটক হিসেবে কাজ করে। সে কারণে দেখা যায়, প্রেমিক-প্রেমিকারা এখানে-সেখানে অযথা ঘোরাঘুরি না করে কোনো ফাস্ট ফুডে, কফি শপে কিংবা চাইনিজে ডেটিং করে। এসব জায়গায় ডেটিং করলে ধরা পড়ার রিস্ক যেমন কম থাকে, তেমনি শরীর-স্বাস্থ্যও ফিট রাখা যায়।

কিন্তু দুঃখের বিষয়, আপনার সঙ্গে প্রেম চলাকালে চাইনিজ তো দূরের কথা, লেদা মিয়ার ভাতের হোটেলেও আমাকে কোনো দিন নিয়ে যাননি। সর্বদা চিনাবাদাম, নয়তো চানাবুট, নয়তো ডাইলপুরি। একবার শুধু জিলাপি অফার করেছিলেন; কিন্তু মিষ্টি পছন্দ নয় বলে অফার গ্রহণ করিনি। তবে জিলাপি খাইনি বলে টাকা বেঁচে গেল দেখে মনে মনে আপনি যে কতটা খুশি হয়েছিলেন, তা আমি টের পেয়েছি। খানাদানার ব্যাপারে এ রকম অবহেলার পরও আপনার সঙ্গে প্রেমজাতীয় সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা যায় না।

 

শর্ত ভঙ্গ ৩ : বান্ধবীদের দিকে নজর

আপনার তিনজন ক্লোজ ফ্রেন্ড আছে, যারা গুণে-মানে প্রেম করার জন্য আপনার চেয়ে অনেক বেশি যোগ্য। উদাহরণস্বরূপ বলা যায় আপনার বন্ধু মোকলেচের কথা। দেখতে খারাপ, নাকটা থেবড়ানো হলেও এই ছেলের দুটি গাড়ি আছে। আলুবাজারে নিজস্ব পাইকারি দোকান। ধরুন সোলেমানের কথা। দেখতে রাজপুত্রের মতো এই ছেলে আপনার চেয়ে অনেক বেশি বুদ্ধিমান। একদিন তো আমাকে সে আস্ত গ্রিল চিকেন খাওয়াল। মফিজের কথায় আসুন। গিফট চয়েজের ব্যাপারে তার নলেজ আপনার চেয়ে অনেক ভালো। আমি তার কেউ না, অথচ তার পরও সে একদিন আমাকে একটা হাতঘড়ি গিফট করল।

চাইলে আপনাকে পরিত্যাগ করে আমি এদের সঙ্গে প্রেম করতে পারতাম, কিন্তু করিনি। অথচ আপনি আমার বান্ধবী নসিমনের কাছে প্রেমপত্র প্রেরণ করেছেন। সেই প্রেমপত্রে আবার ১১টা বানান ভুল। লজ্জায় আমি ওদের সামনে চেহারা দেখাতে পারি না। এবার আপনিই বলুন, এ রকম চরিত্রহীন মানুষের সঙ্গে প্রেম বজায় রাখা যায়?

 

শর্ত ভঙ্গ ৪ : জন্মদিন ভুলে যাওয়া

গত পয়লা মার্চের কথা। রাত ১২টার দিকে আপনার মোবাইলে মিসকল দিলাম। ব্যাক করার খবর নাই। আবার দিলাম। নাহ, এবারও ব্যাক করলেন না। শেষে বাধ্য হয়ে মূল্যবান একটি টাকা খরচ করে আপনাকে কল দিয়ে বললাম, ‘ব্যাক করো—কথা আছে।’ তারপর আপনি ব্যাক করলেন। তারপর আপনার সঙ্গে যে বাক্যবিনিময় হলো, তা নিম্নরূপ—

আমি (রাগতস্বরে) : কী ব্যাপার, এতবার মিসকল দিলাম অথচ ফোন করলেন না যে?

আপনি : ইয়ে...ঘুমিয়ে পড়েছিলাম সোনামণি।

আমি (রাগতস্বরে) : খবরদার, সোনামণি ডাকবে না! এখন পর্যন্ত এক টাকার সোনাও তো কিনে দাওনি। সোনামণি ডাকো কোন আক্কেলে?

আপনি : আচ্ছা, ঠিক আছে, ডাকব না। তা এত রাতে কী মনে করে?

আমি (রাগতস্বরে) : এত রাত মানে! মাত্র তো একটা বাজে!

আপনি : আচ্ছা, ঠিক আছে। এবার একটু শান্ত হও। ব্যাপারটা কী একটু বুঝিয়ে বলো।

আমি (এবার একটু শান্ত) : আজ একটি বিশেষ দিন। বলো দেখি সেটা কী?

আপনি (চিন্তিত) : আজকে বিশেষ দিন...হুম...হুম...হুম...

আমি (রাগতস্বরে) : আরে এটা বলতে এতক্ষণ লাগে নাকি?

আপনি (আহ্লাদিত) : পেয়েছি...আজ বিশ্ব হাঁপানি দিবস।

আমি (রাগতস্বরে) : হাঁপানি দিবস হলে হাঁপাও। আমার সঙ্গে ফোনে প্যানর প্যানর করো কেন?

 

এ পর্যন্ত আলোচনার পর আমি ফোনের লাইন কেটে দিলাম। আপনি পরে আর ফোন করলেন না। অথচ সেদিন আমার হ্যাপি বার্থডে ছিল। ভেবেছিলাম, এদিন আপনাকে নিয়ে কোনো চাইনিজে যাব। সেখানে কেক কেটে দিবসটা সেলিব্রেট করব। কিছুই হলো না। এবার আপনিই বলুন, যে প্রেমিক তার প্রেমিকার হ্যাপি বার্থডে ভুলে যায়, তার সঙ্গে প্রেম চালিয়ে যাওয়া কি ঠিক?

 

এ রকম পরিস্থিতিতে আপনার সঙ্গে আর প্রেম চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। তাই আপনার সঙ্গে সম্পাদিত প্রেমচুক্তি একতরফাভাবে বাতিল করা হলো।

মিস শেফালি বেগম

শিয়ালবাড়ী মোড়, ঢাকা।
 


মন্তব্য