kalerkantho

horror-club-banner

হরর ক্লাব : পুরনো কবরস্থানে লুকানো 'কাউবয় ভূত' ধরা পড়ল ক্যামেরায়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৭ ১৬:১৪



হরর ক্লাব : পুরনো কবরস্থানে লুকানো 'কাউবয় ভূত' ধরা পড়ল ক্যামেরায়

বিশ্বের নানা দেশে বিভিন্ন সময় অনেকের ক্যামেরায় উঠে এসেছে ভূতের প্রমাণ, যার কোনো ব্যাখ্যা নেই। এসব ছবির সত্যাসত্য নিয়ে বিতর্ক থাকলেও বহু মানুষেরই শিরদাঁড়া দিয়ে শীতল স্রোত বয়ে যায় এ ছবি দেখে।

এ লেখায় তুলে ধরা হলো তেমন এক প্রমাণ। ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের বেশ কয়েকটি ছবি প্রকাশিত হচ্ছে কালের কণ্ঠে। আজ পাচ্ছেন তার ১৫তম পর্ব।

পুরনো কবরস্থানে লুকানো 'কাউবয় ভূত'
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা রাজ্যর ঘটনা এটি। সেখানে ১৯৯৬ সালে তোলা এক ছবিতে রহস্যময় এক দৃশ্য ধরা পড়ে। ঘটনাটি যে স্থানে ঘটেছিল সেটি অনেক পুরনো একটি কবরস্থান, যার নাম 'বুথহিল'। বর্তমানে এ কবরস্থানটি এতই পুরনো হয়েছে যে, এখানে কবরগুলোর অবস্থানও ঠিকমতো বোঝা যায় না। তবে এখানেই যে এমন রহস্য লুকিয়ে থাকতে পারে, তা কেউ ভাবতেও পারেনি।

ঘটনার সূত্রপাত মি. ইকে ক্ল্যানটনের হাতে।

তিনি সেখানে রিভলভার নিয়ে দাঁড়িয়ে কাউবয় সাজে নিজের একটি ছবি তোলেন। আর ফিল্ম ক্যামেরায় তোলা এ ছবিটি প্রিন্ট করার পরই জানা যায় রহস্য। কারণ ছবিটি ভালোভাবে দেখলেই বোঝা যায় সেখানে উপস্থিত রয়েছে আরও একজন, যাকে দেখলে একজন কাউবয় বলেই মনে হয়। কিন্তু বাস্তবে সে ছবি তোলার সময় সেখানে কেউ ছিল না।

এরপর অবশ্য ছবিটির পেছনের রহস্যময় কাউবয় যে স্থানে দাঁড়িয়েছিল সেখানে একজন লোককে দাঁড় করিয়ে ছবি তুলে এর মিল যাচাই করা হয়। যদি ভুলক্রমে সেখানে কোনো মানুষ দাঁড়ায় তাহলে কেমন হবে, এটাই ছিল প্রশ্ন। যদিও ছবির সঙ্গে বাস্তবের মিল পাওয়া যায়নি। কারণ সেখানে কোনো মানুষ দাঁড়ালে তার পা দেখা যাবে। অর্থাৎ ছবিটি সত্যিই অস্বাভাবিক। কোনো মানুষের তো নয়ই।

এসব কারণে ছবিটিতে থাকা সেই পেছনের মানুষ এখনও রহস্যাবৃতই রয়ে গেছে। আর তাই পেছনের সে অশরীরি ব্যক্তিকে কাউবয় ভূত বলেই সবাই চিনে নিয়েছে।


মন্তব্য