kalerkantho

horror-club-banner

ভূতের ভয়ে রাতজাগা! প্রাসাদ ছেড়ে পালালেন কোন দেশের প্রেসিডেন্ট?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ মার্চ, ২০১৭ ২১:৩৪



ভূতের ভয়ে রাতজাগা! প্রাসাদ ছেড়ে পালালেন কোন দেশের প্রেসিডেন্ট?

ভূতের কাছে সবাই জব্দ। তা সে দেশের না খেতে পাওয়া হতদরিদ্র নাগরিক হোন বা রাজকীয় বিলাসে দিন কাটানো দেশের প্রেসিডেন্ট।

ভূত যে কাউকে ছাড়ে না, হাতেনাতে তার প্রমাণ পাওয়া গেল ব্রাজিলে!
অবিশ্বাস্য শুনতে লাগলেও সত্যি। ভূতের ভয়ে সপরিবার রাষ্ট্রপতির জন্য বরাদ্দ প্রাসাদ ছেড়ে পালিয়েছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট মিশেল টেমার। নিজ মুখে সে কথা স্বীকারও করেছেন তিনি। ‘ভেজা নিউজ’ নামে একটি সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন, ‘ওখানে অদ্ভুত একটা অনুভূতি হত। প্রথম রাত থেকেই আমি ওই বাড়িতে ঘুমোতে পারিনি। ওখানকার এনার্জিটাই যেন ভাল নয়... এমনকী ওখানে ভূত আছে কি না, তা ভাবতেও বাধ্য হই আমরা!’
ব্রাজিলের রিও দি জেনেইরোতে অত্যাধুনিক আলভোরাদা প্রাসাদেই থাকেন সেদেশের প্রেসিডেন্টরা। টেমারও সপরিবার সেখানেই থাকতেন। রাজকীয় এই প্রাসাদে বিরাট বড় সুইমিং পুল, বড় বাগিচা, ফুটবল মাঠ, চ্যাপেল, মেডিক্যাল সেন্টার— কী নেই! গ্লোবো সংবাদপত্রে তো দাবি করা হয়েছে, ভূত তাড়াতে নাকি পুরোহিতও ডেকেছিলেন টেমারের স্ত্রী মার্সেলা। কিন্তু তাতেও ভূত বাগে না আসায় সেই বিলাসবহুল প্রাসাদ থেকেই আপাতত পাততাড়ি গোটাতে বাধ্য হলেন প্রেসিডেন্ট টেমার।
আপাতত দেশের ভাইস-প্রেসিডেন্টের জন্য বরাদ্দ ছোট প্রাসাদে গিয়ে পরিবারকে নিয়ে উঠেছেন টেমার। প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগে টেমারই ভাইস-প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব সামলাতেন। কিন্তু তিনি প্রেসিডেন্ট হওয়ার পরে এখনও কেউ ভাইস প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেননি। ফলে ওই ছোট প্রাসাদটি খালিই পড়ে ছিল।


মন্তব্য